সব খবর সবার আগে।

ফের বিতর্কে জড়ালেন তৃণমূলের নির্মল মাজি, কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের মহিলা ইন্টার্নকে হুমকির অভিযোগ

ফের কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের এক বিতর্কে জড়ালেন তৃণমূল নেতা নির্মল মাজি। এবার এক কর্তব্যরত মহিলা ইন্টার্নকে ফোনে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠল তাঁর বিরুদ্ধে। এর জেরে চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে শাসকদলের নেতা।

অভিযোগ, গত ২৪শে জুলাই লিভারের রোগে আক্রান্ত এক রোগীকে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। রোগীর পরিজনকে বলা হয়, সিস্টারের কাছ থেকে রোগীর বেড নম্বর জেনে আসতে হবে। সেই সময় অভিযোগকারী ওই মহিলা ইন্টার্ন মেডিসিন ওয়ার্ডেই ছিলেন।

আরও পড়ুন- উপস্থিতি মিলল না কেন্দ্রের, সুপ্রিম কোর্টে মুলতুবি রাখা হল ভোট পরবর্তী হিংসার মামলা

অভিযোগ, রোগীর পরিজনরা সিস্টারের কাছে যেতে আপত্তি জানান। তারা এক ব্যক্তিকে ফোন করেন। অভিযোগ, ফোনের ওপারে যে ব্যক্তি ছিলেন, তিনি নির্মল মাজি। ওই মহিলা ইন্টার্নকে তিনি বারবার হুমকি দেন ওই রোগীকে ‘অ্যাকিউট মেডিসিন ওয়ার্ড’এ ভর্তি করতে হবে।

অভিযোগকারী এমনও অভিযোগ করেন যে নির্মল মাজি তাঁকে ফোনে এও বলেন, তাঁর রেজিস্ট্রেশন বাতিল বা অনুমোদনের ক্ষমতা তাঁর হাতেই রয়েছে।

এই হুমকির পরই কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের জুনিয়র চিকিৎসকদের মধ্যে বেশ অস্থিরতা দেখা দেয়। লিখিত অভিযোগও জানান তারা। সেই অভিযোগ গৃহীতও হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। তবে এখনও পর্যন্ত অভিযোগ যাচাই করে দেখা হয়নি। এই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত নির্মল মাজির কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

আরও পড়ুন- পা নেই, মেয়েকে তাই রাস্তায় ফেলে দিয়ে যান মা-বাবা, আজ সেই মেয়েরই মাসিক আয় ৫০ লক্ষ টাকা

এই বিষয়ে প্রোগ্রেসিভ ডক্টর্স ফোরামের ডিএসও মৃদুল সরকার বলেন, “এটা অত্যন্ত দুঃখজনক ঘটনা। চিকিৎসক নির্মল মাজির নাম সকলেই জানেন। তিনি শাসকদলের বিধায়ক। বিভিন্ন হাসপাতালের চিকিৎসক নার্সদের উপর তিনি যে প্রভাব খাটান এটা সকলেরই জানা। এর আগে টসিলিজুমাবকাণ্ডেও তাঁর নাম জড়িয়েছিল।এই ধরনের ঘটনা ঘটেই চলেছে। যদি এই ঘটনা সত্যি হয় এর নিন্দার ভাষা নেই। সরকারের উচিত এই ধরনের ঘটনা যখন বারবার ঘটছে, তাহলে সেটা বন্ধ করার জন্য সচেষ্ট হওয়া”।

You might also like
Comments
Loading...