কলকাতা

কালবৈশাখীর দাপট! ঝোড়ো হাওয়ায় উড়ল শিয়ালদহ স্টেশনের শেড, বিঘ্ন ট্রেন চলাচল, দেরি করে ছাড়ছে লোকাল, নাকাল যাত্রীরা

কলকাতায় কালবৈশাখী। ঝড়ের দাপটে শিয়ালদহ শাখার অনেক লাইনেই ট্রেন চলাচল এখনও বন্ধ। লোকাল ট্রেন ছাড়ছে তবে তা ৩০ মিনিট থেকে ২১ ঘণ্টা দেরি করে। এর জেরে সমস্যায় পড়েছেন যাত্রীরা।

আজ, শনিবার বিকেলে হঠাৎৎ আকাশ ঢেকে যায় ঘন কালো মেঘে। বিকেলেই যেন সন্ধ্যা নেমে আসে। কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের কিছু জায়গায় জোরে বইতে শুরু করে ঝোড়ো হাওয়া, সেই সঙ্গে শুরু হয় তুমুল বৃষ্টি। ঝড়ের কারণে কলকাতার নানান জায়গায় ভেঙ্গে পড়েছে গাছ। উড়ে যায় শিয়ালদহ স্টেশনের শেড। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে শিয়ালদহ শাখার সব লাইনেই বন্ধ রাখা হয় ট্রেন চলাচল।

এদিকে, এই ঝড়ের কারণে বিঘ্ন ঘটে মেট্রো পরিষেবাতেও। মেট্রো লাইনে গাছ উপড়ে পড়ায় বন্ধ হয়ে যায় মেট্রো চলাচল। ঘণ্টাখানেকের মধ্যে সেই গাছ সরিয়ে ফেললে ফের স্বাভাবিক হয় মেট্রো পরিষেবা। চালু হয়েছে লোকাল ট্রেন পরিষেবাও। যাত্রীদের ভিড় জমেছে স্টেশনে।

আজ, শনিবার বিকেলে ঘণ্টায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে কালবৈশাখীর দাপট দেখা যায় কলকাতা-সহ জেলাগুলিতে। হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস তো আগে থেকেই ছিল। সেই মতোই এদিন দুপুর সাড়ে ৩টে নাগাদ ঘন কালো মেঘে ঢেকে যায় আকাশ। আর তারপরই শুরু হয় ঝোড়ো হাওয়া। এর সঙ্গে যোগ হয় বজ্রবিদ্যুৎসহ বৃষ্টি।

এই বৃষ্টির কারণে জলমগ্ন কলকাতার নানান এলাকা। জল জমেছে ইএম বাইপাস, ঠনঠনিয়া কালী বাড়ি এলাকা, সল্টলেক সেক্টর ফাইভ, সুখিয়া স্ট্রিট, লালবাজার চত্বর, সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, মহত্মা গান্ধী রোড, বড়বাজার, পার্কস্ট্রিট, এজেসি বোস রোড এলাকায়। জল জমার জেরে যান চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। ধীরে ধীরে জল নামানোর ব্যবস্থা করা হচ্ছে বলে খবর।

Related Articles

Back to top button