কলকাতা

বিজেপির নবান্ন অভিযান বেআইনি! মুকুল, লকেট, অর্জুনদের বিরুদ্ধে কলকাতা পুলিশ স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু!

গতকালই বিজেপির নবান্ন অভিযান (Nabanna Abhijan) ঘিরে ধুন্ধুমার হয় রাজ্যে। অস্ত্র উদ্ধার থেকে বোমাবাজি, জল কামান দাগা, বিভিন্ন ঘটনায় উত্তাল হয়ে ওঠে বঙ্গ রাজনীতি। রণক্ষেত্রে পরিণত হয় হাওড়া ও কলকাতার বিস্তীর্ণ এলাকা। পুলিশের ব্যারিকেড পেরিয়ে নবান্নে পৌঁছতে গিয়ে বাঁধা পেয়ে হিংসাত্মক হয়ে ওঠেন বিজেপি কর্মীরা। পাল্টা লাঠি চার্জ করে পুলিশ। ছোঁড়া হয় টিয়ার গ্যাসের সেল।

গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার বিকেলেই এক সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় (Alapan bandyopadhyay) বলেন, আন্দোলন হিংসাত্মক করে তোলার জন্য যাবতীয় প্ররোচনা ছিল। কিন্তু পুলিশ সহিষ্ণুতা দেখানোয় হিংসা এড়ানো গিয়েছে। তবে কিছু ক্ষেত্রে কড়া পদক্ষেপ করেছে পুলিশ।

এর পর আজ বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে স্বতঃপ্রণোদিত মামলা রুজু করল কলকাতা পুলিশ। নবান্ন চলো কর্মসূচিতে বেআইনি জমায়েত করার অভিযোগে, কৈলাস বিজয়বর্গীয় (Kailash Vijayvargiya), মুকুল রায় (Mukul Roy), অর্জুন সিং (Arjun Singh), লকেট চট্টোপাধ্যায় (Locket chattopadhyay), রাকেশ সিং, ভারতী ঘোষ ও জয়প্রকাশ মজুমদারের নামে মামলা করা হয়েছে। পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, অনুমতি ছাড়াই বৃহস্পতিবার কলকাতায় বিশাল জমায়েতে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন এই ব্যক্তিরা। তবে তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে অভিযুক্তের তালিকা থেকে বাদ গেছে বঙ্গ বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষের (Dilip Ghosh) নাম। তবে এই ঘটনা নিয়ে কি বলছেন দীলিপবাবু?

পুলিশের দায়ের করা অভিযোগকে বেশি গুরুত্ব দিতে রাজি নন রাজ্য বিজেপি সভাপতি। তিনি বলেন, এই রাজ্যে আইন দুরকম। শাসক দলের জন্য এক আইন আর বিরোধীদের জন্য আইন আলাদা। আর সেই বিরোধী যদি বিজেপি হয় তাহলে তো কথাই নেই। করোনা মহামারির মধ্যে একাধিক মিছিল করেছে তৃণমূল। সম্প্রতি হাথরস ধর্ষণ কাণ্ডের প্রতিবাদে মিছিল করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তখন কার অনুমতি নিয়েছিলেন তিনি? পুলিশ কেন‌ও তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করেনি। মহামারি আইন কি শুধু বিরোধীদের ওপর কার্যকর হয়? বহু ভুয়ো মামলা আমরা লড়ছি। এটাও লড়ব। তৃণমূল হেরে যাচ্ছে দেখে পুলিশকে ব্যবহার করছে।

মুকুল রায় বলেন, এই সরকারই বলেছিল, গণআন্দোলনে পুলিশ যাবে না। অথচ তারাই পুলিশ পাঠাচ্ছে। পুলিশ নির্ভর হয়ে কোনও সরকার বেশিদিন ক্ষমতায় থাকতে পারে না। পৃথিবীতে খুব কম দেশে এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। আমাদের লিগাল সেল বিষয়টি দেখছে বলে জানান মুকুলবাবু।

Related Articles

Back to top button