কলকাতা

BREAKING: ভোট গণনার দিনও কারচুপির অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে, ১৪১ নম্বর ওয়ার্ডে বিরোধীরা এগিয়ে থাকায় বন্ধ ভোট গণনা

কলকাতা পুরসভার ১৪১ নম্বর ওয়ার্ডটি হুগলি নদীর তীরে অবস্থিত। মেটিয়াবুরুজের পূর্বদিকে হুগলি এবং গার্ডেন রিচ রোড, জেলিয়াপাড়া রোড, বাগদিপাড়া রোড এবং ভাগা খাল রোডের দক্ষিণ তীরের মধ্যে একটি রেখা রয়েছে। দক্ষিণে গার্ডেন রিচ রোড, ডাঃ আবদুল কবির রোড, জেলিপাড়া রোড এবং কৈলাশ মিস্ত্রি লেন এবং পশ্চিমে হুগলি নদীর পূর্ব অংশ রয়েছে।

উত্তর বন্দর, দক্ষিণ বন্দর, ওয়াটগুঞ্জ, পশ্চিম বন্দর, গার্ডেন রিচ, একবালপুর, নাদিয়াল, রাজাবাগান এবং মেটিয়াব্রুজের একাংশ গঠিত এই ওয়ার্ডে ২০০৫ ও ১০ সালে কংগ্রেস জয়লাভ করে। দু’বারই কাউন্সিলর হন মইনুল হক চৌধুরী। ২০১৫ পুরভোটে এই ওয়ার্ডের দখল নেয় তৃণমূল। সে ওয়ার্ডে জয়লাভ করেন মমতাজ বেগম। এই ওয়ার্ডটি তৃণমূলেরই, এমনই ধারণা অনেকের।

তবে এবার এই ওয়ার্ড নিয়ে উঠল বিস্ফোরক অভিযোগ। জানা গিয়েছে, গত দেড় ঘণ্টা ধরে এই ওয়ার্ডে ভোট গণনা বন্ধ রয়েছে। শেষ গণনা অনুযায়ী, এই ওয়ার্ডে এগিয়ে ছিলেন নির্দল প্রার্থী। কিন্তু এরপরই জোর করে ভোট গণনা বন্ধ করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।

অভিযোগ, শেষ রাউন্ডের চারটি ইভিএম আনতে দেওয়াই হচ্ছে না। তবে সূত্রের খবর অনুযায়ী, শেষ গণনার পর দেখা যায় এই ওয়ার্ডে ১০০০ ভোটে এগিয়ে রয়েছেন নির্দল প্রার্থী। ভোট গণনা বন্ধ থাকায় এই নিয়ে প্রতিবাদ করেন বিজেপি, বাম ও কংগ্রেস। এই ঘটনায় নির্বাচন কমিশনের পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তোলা হয়েছে। এও জানা গিয়েছে যে ওই নির্দল প্রার্থী সহ সমস্ত বিরোধী দলের এজেন্টদের গণনা কেন্দ্র থেকে বাইরে বের করে দেওয়া হয়েছে। তবে তৃণমূল এজেন্ট রয়েছেন গণনা কেন্দ্রে।

বিরোধীদের অভিযোগ, শেষ রাউন্ডে ভোটে কারচুপি করার জন্যই এমনটা করা হয়েছে। নাহলে সমস্ত বিরোধী দলের এজেন্টদের ভোট গণনা কেন্দ্রের বাইরে বের করে দিয়ে শুধুমাত্র তৃণমূল এজেন্টকে কেন রাখা হল কেন্দ্রে। ভোটের দিনও ভোটে অনিয়ম হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছিল বিরোধীরা। আর ভোট গণনার দিনও সেই একই ছবি ধরা পড়ল।

Related Articles

Back to top button