সব খবর সবার আগে।

ভারত-চীনের মধ্যে সম্পর্ক ঠিক করতে রাশিয়া ভারতকে অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করুক, আর্জি চীনের সরকারি মুখপত্রের

দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং গেলেন মস্কো সফরে এবং বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর রাশিয়া, ভারত ও চীনের ভার্চুয়াল বৈঠকে। এই পরিস্থিতিতে চীনের সরকারি সংবাদপত্র পিপলস ডেইলি মঙ্গলবার মস্কোর কৌশল নির্ণায়ক স্তরে বেজিংয়ের এজেন্ডাকেই এগোনোর চেষ্টা করছে বলে মনে করছেন ওয়াকিবহাল মহল।

চীনের সরকারি পত্রিকা পিপলস ডেইলি ‘সোসাইটি ফর ওরিয়েন্টাল স্টাডিজ অব রাশিয়া’ নামের একটি ফেসবুক গ্রুপে ভারতকে অস্ত্র বিক্রির বিষয়ে রাশিয়ার কাছে বিশেষ অনুরোধ জানায়।

ওই ফেসবুক পোস্টে লেখা হয়েছে, “বিশেষজ্ঞদের মতানুসারে রাশিয়া যদি চীন ও ভারতের মধ্যকার বিবাদকে নরম করতে চায় তবে এই সংবেদনশীল সময়ে ভারতকে অস্ত্র সরবরাহ না করাই শ্রেয়। কারণ এশিয়ার দু’টি শক্তিশালী দেশই রাশিয়ার খুবই ঘনিষ্ঠ কৌশলগত অংশীদার।”

কয়েক দিন আগেই ভারতের তিন বাহিনীকে জরুরীকালীন অস্ত্রশস্ত্র কেনার জন্য ৫০০ কোটি টাকার আর্থিক ক্ষমতা নিশ্চিত করে কেন্দ্রীয় সরকার। দেশের সামরিক ক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। এই ঘটনার পরেই চীনের সরকারি মুখপত্রের এই আর্জি বেশ ইঙ্গিত বহন করছে।

ওই পোস্টে আরও লেখা হয়েছে, “সংবাদপত্রের প্রতিবেদন অনুযায়ী, লাদাখ সীমান্তে এখন চীন ও ভারতের মধ্যে যে সংঘর্ষ চলছে তার জন্য ভারত মিগ ২৯ এবং সুখোই ৩০এমকে-সহ আরও বেশ কিছু যুদ্ধবিমান কিনতে চায়।”

বিশেষজ্ঞদের মতে, চলতি মাসের ১৫ই জুন লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চীন ও ভারতের সংঘর্ষের পর দু’দেশে পুনরায় শান্তি এবং স্থিতিশীলতা প্রতিস্থাপন করতে ভারত ও চীনের মধ্যে একাধিক বৈঠক আয়োজিত হচ্ছে। এমন সময় বেজিং মনে করছে, দিল্লি সম্ভবত দেশের সামরিক বাহিনীকে আরও সক্ষম করতে মস্কোর সঙ্গে প্রতিরক্ষা সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা এগিয়ে চলেছে।

You might also like
Leave a Comment