দেশে বিদেশে

যে দেশের জিডিপি ঋণগ্রস্ত সে করবে অন্যকে সাহায্য? পাকিস্তানের আর্থিক সাহায্যের প্রস্তাবকে নাকচ দিল্লির

করোনার জন্য ভারতকে অর্থ সাহায্য করতে চায় পাকিস্তান। কিন্তু যে দেশের জিডিপি ভারতের আর্থিক প্যাকেজের চেয়ে কম তাদের মুখে কি এমন কথা মানায়! পাকিস্তানের আর্থিক প্যাকেজের প্রস্তাবকে এমনভাবেই প্রত্যাখান করল ভারত। পাকিস্তানের প্রায় ৯০ শতাংশ জিডিপি যে ঋণে ডুবে আছে, সেই কথাও মনে করিয়ে দিল ভারত।

এদিন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন যে, পাকিস্তানের মনে রাখা উচিত তাদের জিডিপির ৯০ শতাংশই দেনার দায় ডুবে রয়েছে তার মধ্যে তারা ভারতকে কিভাবে সাহায্য করতে চাইছে? আর ভারতের কোভিড মোকাবিলায় স্টিমুলাস প্যাকেজই পাকিস্তানের জিডিপির সমান।

বৃহস্পতিবার একটি সংবাদপত্রের প্রতিবেদন টুইট করে ইমরান খান জানান যে, ভারতবর্ষে গরীব মানুষগুলো করোনার প্রকোপের জেরে কষ্টে দিন গুজারণ করছেন। তাই তাদেরকে একটি প্রকল্পের বিষয় সাহায্য করতে তারা আগ্রহী। ইমরান খান বলেন যে, সংবাদমাধ্যমের এই রিপোর্ট অনুযায়ী করোনার চলতে ৩৪ শতাংশ ভারতীয় পরিবার কোনো সাহায্য ছাড়া এক সপ্তাহের বেশি কাটাতে পারবেন না। তাই তাদের সাহায্য করতে চায় পাকিস্তান। এমনকি দেশে যে নগদ বিনিময় প্রকল্পটি চলছে সেই সমস্ত তথ্যও তিনি ভারতের সঙ্গে ভাগ করে নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দাবি, করোনার চলতে এখনো অবধি প্রায় এক কোটি পরিবারকে ১২০ বিলিয়ন টাকা দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে ভারতও করোনার মোকাবিলার জন্য কিছুদিন আগে আত্মনির্ভর ভারত প্রকল্পের আওতায় প্রায় কুড়ি হাজার কোটি টাকার স্টিমুলাস প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। অন্যদিকে অনেক বিশেষজ্ঞরা দাবি করেছে যে, পাকিস্তানের ঋণগ্রস্ত জিডিপি ভারতের এই আর্থিক প্যাকেজের সমমূল্য। এবার সেই কথাটাই পুনরায় পাকিস্তানকে করে মনে করিয়ে দিলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র।

Related Articles

Back to top button