দেশে বিদেশে

‘বদল আনব বলে এসেছি’ বলছেন লিয়েন্ডার পেজ, ‘এতদিন কোথায় ছিলেন?’ পাল্টা জবাব গোয়াবাসীর!

আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি মার্চ মাসে আসছে গোয়ার বিধানসভা নির্বাচন। আর গোয়াতে নিজের খাতা খুলতে উঠে পড়ে লেগেছে তৃণমূল কংগ্রেস। এখন তৃণমূল কংগ্রেস নেতাদের প্রায়শই গোয়াতে দেখা যাচ্ছে। তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে গোয়া ঘুরে গেছেন। গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী লুইজিনহো ফেলেইরো নিজে যোগদান করেছেন তৃণমূল কংগ্রেসে।

কিছুদিন আগে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন অলিম্পিকে ব্রোঞ্জজয়ী টেনিস খেলোয়াড় লিয়েন্ডার পেজ। এতদিন খেলার ময়দানে নিজের দাপট দেখিয়েছিলেন লিয়েন্ডার, এবার রাজনীতির ময়দানে টেনিসের শট মারতে উদ্যত হয়েছেন এই খেলোয়াড়।গোয়ার নির্বাচনের সম্ভবত লড়বেন তিনি সেই জন্য গোয়াতে এখন তাকে দেখা যাচ্ছে নিজের বান্ধবী কিম শর্মার সঙ্গে।

আজ গোয়াতে তৃণমূলের প্রচারে দেখা গেল লিয়েন্ডার পেজ কে। তবে গোয়াবাসী কিন্তু লিয়েন্ডারকে খুব ভালোভাবে গ্রহণ করলেন না। আজ দিন শুরু করেছিলেন মিটিং এর মাধ্যমে তারপরে প্রচার কৌশল ঠিক করে প্রচারে বেরোন লিয়েন্ডার। রাস্তায় সভা করেন এবং মানুষের সঙ্গে হাতও মেলান তিনি।

একটি বেসরকারি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন,’আমি টেনিস খেলে ৩০ বছর ধরে আমার দেশের সেবা করেছি। আমি বিশ্বজুড়ে ভ্রমণ করেছি এবং আমাদের পতাকা এবং আমাদের জনগণের জন্য খ্যাতি আনার চেষ্টা করেছি। কিন্তু এখন আমি টেনিস থেকে অবসর নিয়েছি। আমার এখন মূল লক্ষ্য হল আমাদের জনগণের জীবনযাত্রার মান উন্নত করা এবং সমাজে শান্তি এবং সম্প্রীতি স্থাপন করা। যেখানে আমরা ভারতীয় হিসাবে এবং গোয়ান হিসাবে আমরা ‘এক’। ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে আমরা এক সম্প্রদায়।’

যদিও গোয়াবাসীর মনে লিয়েন্ডারকে নিয়ে থেকে যাচ্ছে একাধিক সংশয়। নিজে খেলার সময় লিয়েন্ডার কোনদিনও গোয়াতে আসেন নি তাই এখন নির্বাচনের আগে তিনি গোয়াতে নিজের শিকড় খুঁজে বেড়াতে বেরিয়েছেন বলে লোকের তার ওপর যথেষ্ট রাগ হয়েছে। তবে তাদের কথার প্রত্যুত্তর দিয়েছেন লিয়েন্ডার। তিনি জানিয়েছেন, ‘আমি মনে করি অনেক গোয়ান এবং অনেক ভারতীয় আছেন যাঁরা জীবিকা নির্বাহের জন্য নিজেদের শিকড় ত্যাগ করেছেন। কিন্তু আমরা আমাদের হৃদয়ের মধ্যে আমাদের শিকড় ত্যাগ করি না। আমি কি দশ বছর আগে আসতে পারতাম? আমি কি পাঁচ বছর আগে আসতে পারতাম? আমি কি ছয় মাস আগে আসতে পারতাম? হতে পারে পারতাম। কিন্তু আমি এখন এখানে এসেছি, সেটাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমার লোকেদের জন্য একটা পার্থক্য গড়ে দিতে আমি এখন এখানে এসেছি।’

Related Articles

Back to top button