সব খবর সবার আগে।

দাড়ি চর্চা! নরেন্দ্র মোদীর দাড়ি নিয়ে অদ্ভুত মন্তব্য পাকিস্তানী জ্যোতিষী ও সংবাদমাধ্যমের

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিষয়ে নানান চর্চা প্রতিনিয়ত হতেই থাকে। তাঁর রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি, দেশকে পরিচালনা করার তাঁর ক্ষমতা নানান বিষয়ে নানা মুনির নানা মত। তবে এবার মোদীর দাড়ি বাড়ানোর বিষয়টি নিয়েও চর্চা শুরু হয়েছে পাকিস্তানে। সম্প্রতি, একটি ভিডিও বেশ ভাইরাল হয়েছে যাতে এক পাকিস্তানী জ্যোতিষীকে নরেন্দ্র মোদীর দাড়ির ব্যাপারে অদ্ভুত মন্তব্য করতে শোনা গিয়েছে।

ভিডিও আসলে গত বছরের ৩১শে ডিসেম্বরের। ভিডিওতে ওই পাকিস্তানী জ্যোতিষী বলেন, “২০১৯ সালের নভেম্বর থেকে মোদীর খারাপ সময় চলছে। নরেন্দ্র মোদীর প্রাথমিক জ্যোতিষীদের মধ্যে একজন বিজেপি প্রতিষ্ঠাতা পিতা। তাঁর নাম মুরালি মনোহর জোশী। তিনিই বিজেপির গোটা দলের জন্য জ্যোতিষবিদ্যার বুটক্যাম্প পরিচালনা করেন”।

কিন্তু জানা গিয়েছে যে জোশী আসলে কোনও জ্যোতিষী নন, তিনি একজন পদার্থবিদ্যার অধ্যাপক। কিন্তু তবুও এই পাকিস্তানী জ্যোতিষী তাঁকে জড়িয়ে মোদীর সম্পর্কে বিদ্বেষ প্রকাশ করতে কোনও কসুর করেননি।

তিনি আরও বলেন যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দাড়ি ছাঁটছেন না, চুল কাটছেন না, তিনি নানান যজ্ঞ করছেন কারণ তিনি ‘অখণ্ড ভারত’-এর স্বপ্ন দেখছেন। ওই জ্যোতিষীর মতে, মোদী নাকি বিখ্যাত নেতা ও অবতার কাল্কির মতো নিজেকে দেখানোর চেষ্টা করছেন। এমনকি, সেই জ্যোতিষী এও বলেছেন যে তিনি আশা করবেন যাতে মোদীর ‘অখণ্ড ভারত’-এর স্বপ্ন কখনও পূরণ না হয়।

অন্য একটি ভিডিওও বেশ ভাইরাল হয় যেখানে পাকিস্তানী সাংবাদিক নায়লা ইনায়াতকে বলেন যে, “আপনারা নিশ্চয় দেখে থাকবেন যে নরেন্দ্র মোদী নিজের দাড়ি ও গোঁফ বাড়িয়েছেন। এসব তিনি করছেন যাতে তাঁকে মহারাষ্ট্রের বীরনায়ক ছত্রপতি শিবাজী মহারাজের মতো দেখায়। সেই বীর যিনি ঔরঙ্গজেবের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করেছিলেন। মোদী তাঁকে নকল করার চেষ্টা করছেন। এটি একটি চলমান প্রক্রিয়া। কিন্তু এর দ্বারা তাঁর শক্তিশালী ব্যক্তিত্বে খারাপ প্রভাব পড়ছে”।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দেশ পরিচালনা নিয়ে চর্চা না হয়ে পাকিস্তানী মিডিয়া বা জ্যোতিষী তাঁর দাড়ি, গোঁফ নিয়ে এত চিন্তিত হয়ে পড়েছেন, তা সত্যিই তাজ্জব ব্যাপার।

You might also like
Comments
Loading...