দেশে বিদেশে

‘আমাকে বাঁচান, যে কোনও সময় আমাকে খুন করে ফেলবে’, মোদীর কাছে নিরাপত্তা চেয়ে কাতর আর্জি পাক অধিকৃত কাশ্মীরের গণধ’র্ষি’তার

এক ভিডিও বার্তা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে আশ্রয় ও নিরাপত্তা চাইলেন পাক অধিকৃত কাশ্মীরের এক গণধ’র্ষি’তা মারিয়া তাহির। এই ভিডিওতে আর্জি জানিয়ে তিনি বলেন, “আমাদের ভারতে আসার অনুমতি দিন। যে কোনও সময় আমি আর আমার সন্তানরা খুন হয়ে যেতে পারি”।

মারিয়ার অভিযোগ, ২০১৫ সালে তাঁকে যে ঘৃণ্য অপরাধের শিকার হতে হয়েছিল, সেই বিচার তিনি সাত বছর পরও পান নি। উপরন্তু, তাঁকে বারবার প্রাণনাশের হুমকির মুখে পড়তে হয়েছে বলে অভিযোগ। সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর তরফে জানা যাচ্ছে যে এই কারণে ওই মহিলা মোদীর দ্বারস্থ হয়েছেন।

এমন অভিযোগ বারবার এর আগেও উঠে এসেছে যে পাক অধিকৃত কাশ্মীরে নিয়মিত নির্যাতনের শিকার হন মহিলারা। আর এর ভয়াবহ উদাহরণ মারিয়া নিজে। মারিয়া ৮ জনের বিরুদ্ধে তাঁকে ধর্ষণ করার অভিযোগ জানিয়েছিলেন। এর পাশাপাশি তিনি এও জানান যে গত ৭ বছর ধরে তিনি নানানভাবে ন্যায়বিচার পাওয়ার চেষ্টা করছেন। কিন্তু পাক অধিকৃত কাশ্মীরের পুলিশ প্রশাসন থেকে শুরু করে সরকার এমনকী বিচারব্যবস্থাও তাঁকে ন্যায়বিচার পাইয়ে দিতে পারেনি। তাঁর দাবী, এর উপর পুলিশ প্রশাসনের একাংশ নিয়মিত তাঁকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে চলেছে।

এমন পরিস্থিতিতে মোদীর দ্বারস্থ হয়েছেন মারিয়া। এই ভিডিওতে তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, “এই ভিডিওর মাধ্যমে আমি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে আর্জি জানাচ্ছি আমাদের ভারতে আসার অনুমতি দেওয়া হোক। আমার সন্তানদের খুনের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। স্থানীয় পুলিশ ও একজন সিনিয়র রাজনীতিবিদ চৌধুরী তারিখ ফারুক যে কোনও সময় আমাকে ও আমার সন্তানদের খুন করতে পারে। আমি মোদীকে আমাদের আশ্রয় ও সুরক্ষা দিতে অনুরোধ করছি”।

কিছুদিন আগেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং বলেন যে পাক অধিকৃত কাশ্মীরকে স্বাধীন করার লক্ষ্যেই এগোচ্ছে সরকার। আর এরই মধ্যে এবার সেখানকার এক নির্যাতিতা কাতর আর্জি জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে।

Related Articles

Back to top button