সব খবর সবার আগে।

সন্ত্রাসে উস্কানি! নয়াদিল্লিতে পাক দূতাবাসের ৫০% কর্মীকে এক সপ্তাহের মধ্যে ছাঁটাইয়ের নির্দেশ ভারতের

ভারতে পাকিস্তানি দূতাবাসে এবার ৫০ শতাংশ লোক কমিয়ে নিতে পাকিস্তানকে কড়া নির্দেশ দিল নয়াদিল্লি। ভারতের তরফ থেকে অভিযোগ, সন্ত্রাসবাদ ও সীমান্ত দিয়ে হিংসায় পাকিস্তানিরা জড়িত থাকে। আর তাই সম্প্রতি ভারতে দূতাবাসের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক সৈয়দ শাহ হায়দারকে ডেকে নয়াদিল্লি সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে পাক দূতাবাস থেকে ৫০% কর্মী ছাঁটাই করে নিজেদের দেশে যেন ফিরিয়ে নিয়ে যায় পাকিস্তান। আর এই নির্দেশ কার্যকর করতে হবে আগামী ৭ দিনের মধ্যে।

কয়েক সপ্তাহ আগে পাক দূতাবাসের দুই নিম্নপদস্থ কর্মকর্তাকে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে বহিষ্কার করে ভারত। অন্যদিকে পাকিস্তানের তরফে ইসলামাবাদে ভারতীয় দূতাবাসের দুই কর্মীকে অপহরণ করে অকথ্য অত্যাচার করা হয়। যা কোনভাবেই মেনে নেয়নি ভারত। এই ঘটনাটি প্রতিফলন হিসেবে পাক দূতাবাসে ৫০জন কর্মী ছাঁটাই এর নির্দেশ বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। বর্তমান ব্যবস্থা অনুযায়ী দুই দেশের দূতাবাসে মোট ১১০ জন করে কর্মী কাজ করতে পারে। কিন্তু ভারতের এই নির্দেশের পর ৫৫ জন পাক কর্মী দেশে ফিরে যেতে বাধ্য।

গত অগস্টে ভারত জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ স্ট্যাটাস লুপ্ত করার পর ভারতীয় হাইকমিশনারকে বহিষ্কার করে পাকিস্তান। ভারতেও কোনও নয়া দূত পাঠায়নি তারা। তখন থেকেই এই দুই পদ খালি আছে।

২০০১-এ পার্লামেন্ট হানার পর এরকম ভাবে হাইকমিশনে লোক কমিয়েছিল দুই পক্ষ। এদিন বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে যে দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসারকে জানানো হয় যে বহুদিন ধরেই অনেকে চরবৃত্তি ও সন্ত্রাসবাদী কাজে যুক্ত আছেন। অন্যদিকে ভারতীয় দূতাবাসের লোকদেরকে নানা ভাবে উত্ত্যক্ত করা হচ্ছে ইসলামাবাদে।

পাকিস্তান ও সেই দেশের অধিকর্তাদের ব্যবহার ভিয়েনা কনভেশন ও দুই দেশের মধ্যে যে সব দ্বিপাক্ষিক চুক্তি আছে, তার সঙ্গে খাপ খায় না বলেই জানিয়েছে ভারত। তাই বাধ্য হয়েই ভারত এই পদক্ষেপ নিচ্ছে বলে নয়াদিল্লি থেকে জানানো হয়েছে।

You might also like
Leave a Comment