সব খবর সবার আগে।

ক্ষতিগ্রস্ত বিশ্বের শক্তিশালী দেশ: ভারতের থেকে ২১৬ বিলিয়ন ডলার ঋণ নিয়েছে আমেরিকা

আমেরিকা! নামটা শুনলেই মাথায় আসে পাশ্চাত্য সভ্যতার কথা, অভাবহীন উন্নত এক দেশের কথা। কিন্তু গত বছর করোনা ভাইরাসের মারণ থাবা আমেরিকাকে যেন একপ্রকার শেষ করে দিয়েছে। করোনার কারণে গোটা বিশ্বের অর্থনীতিই চরম ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। বিশ্বের সবথেকে বড় ও শক্তিশালী অর্থনীতির দেশের কাধে রয়েছে এখন ঋণের বোঝা। আমেরিকাতে ২৯ ট্রিলিয়ন ডলার (২৯ লক্ষ কোটি ডলার) ঋণের বোঝা রয়েছে। ভারতীয় অর্থনীতির থেকে এই ঋণ প্রায় ১০ গুণ বেশি।

আমেরিকা ভারতের থেকে ২১৬ বিলিয়ন ডলার (১৫ লক্ষ কোটি টাকা) ঋণ নিয়েছে। ২০২০ সালে আমেরিকার মোট ঋণ ২৩.৪ ট্রিলিয়ন ডলার ছিল। সেই হিসেবে আমেরিকার প্রতি ব্যক্তির উপর ৭২৩০৯ ডলার (৫২ লক্ষ টাকার) এর ঋণ ছিল। জানা গিয়েছে, আমেরিকা ব্রাজিলের থেকেও ২৫৮ বিলিয়ন ডলারের ঋণ নিয়েছে। ২০০০ সালে আমেরিকার মাথায় ৬ ট্রিলিয়ন ডলারের ঋণ ছিল। সেক্ষেত্রে ভারতের কাধে রয়েছে ২০২০-২১ বর্ষে মোট ঋণ ১৪৭ লক্ষ কোটি টাকার ঋণ।

Congressional Budget Office এর অনুযায়ী ২০৫০ সালের মধ্যে আমেরিকা আরও ১০৪ ট্রিলিয়ন ডলারের ঋণ নেবে। যা ভবিষ্যতে আমেরিকার জন্য চিন্তার বিষয় হতে পারে। এই বিষয়ে আমেরিকান কংগ্রেস অ্যালেক্স মুনি বলেন, “ওবামা আট বছর দেশের রাষ্ট্রপতি ছিলেন আর ওনার শাসনকালে দেশের মাথায় ঋণের বোঝা দ্রুত গতিতে বেড়ে যায়। আমেরিকা সবথেকে বেশি চীন আর জাপানের থেকে ঋণ নিয়েছে, আর এঁরা আমেরিকা বন্ধুও না। আমেরিকার কাছে চীন সবসময় প্রতিযোগী হিসেবে ছিল।”

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...