দেশ

ভেঙে টুকরো টুকরো হয়ে গেল কংগ্রেস, গোয়ায় শক্তি বাড়াচ্ছে বিজেপি, ৮ কংগ্রেস বিধায়ক এবার যোগ দিলেন গেরুয়া শিবিরে

আশঙ্কা তো এমনই ছিল, আর সেটাই এবার সত্যি হল। গোয়ার (Goa) ৮ কংগ্রেস বিধায়ক (Congress MLA) এবার যোগ দিলেন বিজেপিতে (BJP)। এর আগে প্রাক্তন কংগ্রেস প্রদেশ সভাপতি গিরীশ চডঙ্কর (Girish Chandankar) অভিযোগ করেছিলেন যে কংগ্রেস বিধায়কদের ভাঙাতে নাকি বিজেপি ৪০ কোটি টাকার প্রস্তাব দিয়েছে। শেষ পর্যন্ত কংগ্রেসের ৮ বিধায়ক এবার গেরুয়া শিবিরে।

গোয়ায় বিধায়ক কেনাবেচা নতুন কিছু নয়। পাশের রাজ্য মহারাষ্ট্র দখলের পর গোয়াকেই পাখির চোখ করেছিল বিজেপি। যদিও সে রাজ্যের শাসক দল বিজেপিই। তবে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা না থাকায় মহারাষ্ট্রবাদী গোমন্তক পার্টির সঙ্গে জোট বাঁধতে হয় বিজেপিকে। তবে এবার বিজেপির শক্তি আরও বাড়ল। কংগ্রেসের গোটা পরিষদীয় দলকেই নিজেদের দিকে টানার চেষ্টায় রয়েছে গেরুয়া শিবির।

গত জুলাই মাসেই গিরীশ চডঙ্কর দাবী তুলেছিলেন যে গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগম্বর কামাত ও বিরোধী দলনেতা মাইকেল লোবো ভিতরে ভিতরে বিজেপির সঙ্গে যোগাযোগ করছে। এরা সকলে একসঙ্গে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরিকল্পনা করছে বলে দাবী তোলেন গিরীশ। এই কারণে সেই সময় সোনিয়া গান্ধী তড়িঘড়ি মুকুল ওয়াসিনকে গোয়ায় পাঠান।

সেই সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য এআইসিসির সাধারণ সম্পাদক দীনেশ গুণ্ডুরা কংগ্রেস পরিষদীয় বৈঠকেরও ডাক দেন। কিন্তু সেই বৈঠকে কংগ্রেসের ১১ জন বিধায়কেরন মধ্যে মাত্র ৬ জন উপস্থিত ছিলেন। তাদের সঙ্গেই বৈঠক করে ওয়াসিন। কংগ্রেস সেই সময় দাবী করেছিল যে এই ৬ জন বিধায়ক আপাতত দলত্যাগ করছেন না।

গোয়ায় বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই বিধায়করাই মন্দির, মসজিদ, চার্চে গিয়ে শপথ নিয়েছিলেন যে তারা দলবদল করবেন না। এই দলত্যাগের পরিকল্পনার নেতৃত্বে ছিলেন দিগম্বর কামাত। তিনি গান্ধী পরিবারের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিলেন। কংগ্রেসের খারাপ সময়ে সবসময় দলের পাশেই ছিলেন তিনি।

গোয়ায় কংগ্রেস ক্ষমতায় ফিরলে তিনিই মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার দাবীদার ছিলেন। সেই দিগম্বরই বিজেপিতে যাবেন, তা যেন বিশ্বাস করতে পারছিল না কংগ্রেস। ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকার জন্য বিরোধী দলনেতার পদ থেকে হটানো হয় মাইকেল লোবোকে। কিন্তু শেষরক্ষা আর হল কই। কংগ্রেসকে ভেঙে গুঁড়িয়ে গেরুয়া পতাকাই ধরলেন ৮ বিধায়ক।

Related Articles

Back to top button