সব খবর সবার আগে।

নিন্দনীয়! মসজিদের ভেতর নাবালিকাকে ধর্ষণ, গ্রেফতার অভিযুক্ত ধর্মগুরু

দিল্লির এক মসজিদে ১২ বছর বয়সী এক নাবালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। সেই মসজিদের ধর্মগুরুর বিরুদ্ধেই উঠেছে এই অভিযোগ। গ্রেফতার করা হয়েছে ওই ধর্মগুরুকে। অভিযুক্তকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে আদালতের পক্ষ থেকে।

জানা গিয়েছে, গত রবিবার, ওই ১২ বছরের নাবালিকা উত্তর-পূর্ব দিল্লির ওই মসজিদের ভেতর যায় জল খাওয়ার জন্য। অভিযোগ, তখন ওই ধর্মগুরু তাঁকে ভিতরে ডেকে নিয়ে যান ও ধর্ষণ করেন। এরপর বাড়ি ফিরে মা-বাবাকে গোটা ঘটনা জানায় ওই নাবালিকা।

আরও পড়ুন- স্নাতকোত্তর শিক্ষিত মেয়ে, গতানুগতিক প্রথা ভেঙে খাবার হোম ডেলিভারির কাজ করছেন সঙ্গীতা

সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, এরপর ওই নাবালিকার কাউন্সেলিং করানো হয়। তার মেডিক্যাল পরীক্ষা হয় বলেও খবর। এরপরই নাবালিকার পরিবার থানায় ওই ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান। এই ঘটনায় গোটা এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। মসজিদের সামনে স্থানীয় বাসিন্দারা জড়ো হন। দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখান তারা। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মসজিদের বাইরেও মোতায়েন করা হয় পুলিশ।

পুলিশের এক আধিকারিক জানান, ওই ধর্মগুরু রাজস্থানের ভরতপুরের বাসিন্দা। গাজিয়াবাদের লোনি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে খবর। এও জানা গিয়েছে যে ওই ধর্মগুরু বিবাহিত এবং তার চার সন্তানও রয়েছে।

ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৬ ধারা ও পকসো আইনে ওই ধর্মগুরুকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। নাবালিকার এই ধর্ষণের ঘটনায় স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। অভিযুক্ত ধর্মগুরুকে যাতে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হয়, এমনটাই দাবী করেছেন সকলে।

You might also like
Comments
Loading...