দেশ

শিক্ষিকাকে অপহরণ করে গণধ’র্ষ’ণ, অভিযুক্তকে এনকাউন্টার যোগীরাজ্যের পুলিশের, উত্তেজনা এলাকায়

উত্তরপ্রদেশের লখনউয়ের বিভূতিখণ্ড এলাকায় টিউশন পড়িয়ে ফেরার পথে অপহরণ করে গণধ’র্ষ’ণ করা হয় এক শিক্ষিকাকে। এই ঘটনায় মূল অভিযুক্ত ইমরানের সঙ্গে সংঘর্ষ বাঁধে পুলিশের। পুলিশের উপর গুলি চালিয়ে পালানোর চেষ্টা করে অভিযুক্ত। সেই সময় পুলিশ পাল্টা এনকাউন্টার করে গুলি করে অভিযুক্তকে। আপাতত লোহিয়া হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে ইমরান নামের ওই অভিযুক্ত।

পুলিশ সূত্রে খবর, গত শনিবার সন্ধ্যায় টিউশন পড়িয়ে ফিরছিলেন ওই শিক্ষিকা। সেই সময় একটি অটো এসে দাঁড়ায় তাঁর সামনে। সেই অটো থেকে দু’জন যুবক এসে জোর করে তুলে নিয়ে যায় ওই শিক্ষিকাকে। এরপর সুশান্ত গলফ সিটির পিছনে এক ঝোপের মধ্যে শিক্ষিকার উপর যৌ’ন নির্যাতন চালায় ওই যুবকরা। শিক্ষিকাকে অচৈতন্য অবস্থায় ফেলে রেখে পালায় তারা।

এরপর তিন থানাতে ঘুরেও পুলিশে অভিযোগ দায়ের করতে পারেন নি ওই শিক্ষিকা। শেষ পর্যন্ত গোটা ঘটনাটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। এরপর পদক্ষেপ করে বিভুতখণ্ড থানার পুলিশ।

জানা গিয়েছে, গত সোমবার এই ঘটনায় আকাশ তিওয়ারি নামের এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তবে মূল অভিযুক্ত ইমরানের খোঁজ চালাচ্ছিল পুলিশ। ডিসিপি প্রাচী সিংহ জানান যে তাদের কাছে খবর আসে যে কঠৌতা এলাকায় লুকিয়ে রয়েছে ইমরান। তখনই সেই এলাকায় খোঁজ চালায় পুলিশ।

সূত্রের খবর, গতকাল, বুধবার ওই এলাকায় এক বাইক আরোহী যুবককে দেখে সন্দেহ হয় পুলিশের। পুলিশ তাকে থামাতেই পালানোর চেষ্টা করে সে। বাইক থামিয়ে কয়েকবার গুলিও চালায় ইমরান নামের ওই যুবক। এর পাল্টা গুলি চালায় পুলিশও। গুলি লাগে ইমরানের পায়ে। জানা গিয়েছে, ইমরানের কাছ থেকে একটি পিস্তল ও কার্তুজ বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button