সব খবর সবার আগে।

বাংলায় ক্রমেই বাড়ছে মহিলাদের বিরুদ্ধে নানান অপরাধ, দেশের ‘নিরাপদতম’ শহর কোনটা, জানেন?

ন্যাশানাল ক্রাইম ব্যুরো দেশের নানান শহরের উপর সমীক্ষা চালিয়ে নির্ধারণ করেছে দেশের সবথেকে নিরাপদ শহর কোনটি। এই রিপোর্টে দেখা গিয়েছে ২০১৮ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে নানান বড় বড় শহরগুলির মধ্যে অপরাধের সংখ্যা বেশ বেড়েছে। এই রিপোর্ট অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গে মহিলাদের উপর অত্যাচারের সংখ্যা ২০১৯ সালের তুলনায় ২০২০ সালে অনেকটাই বেড়েছে যা বেশ আতঙ্কিত।

তবে এই রিপোর্ট অনুযায়ী, দেশের অন্যান্য শহরের তুলনায় কলকাতায় অপরাধ প্রবণতা কমছে। ১৯টি বড় বড় শহরের মধ্যে তুলনা করে দেখা গিয়েছে যে গত কয়েক বছরের তুলনায় কলকাতায় অপরাধের সংখ্যা কমেছে। কিন্তু তবুও অপরাধের দিকে দিয়ে এগিয়ে বাংলা।

এনসিআরবির রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৮ সালে কলকাতায় ১৯ হাজার ৬৮২টি অপরাধ হয়েছিল। ২০১৯ সালে সেই সংখ্যা কমে হয় ১৭ হাজার ৩২৪। ২০২০ সালে অপরাধের সংখ্যা কমে হয়েছে ১৫ হাজার ৫১৭। কলকাতায় কমেছে নারীদের উপর অপরাধ অন্যান্য শহরের তুলনায় কম। দিল্লিতে যেখানে পণের জেরে মারা গিয়েছিলেন ১১১ জন মহিলা। কলকাতায় সেই সংখ্যাটা মাত্র ৯।

আরও পড়ুন- ‘মা’ মমতার থেকে পুজোর উপহার পেলেন দেবাংশু, বেজায় খুশি তৃণমূল নেতা

এও জানা যায় ২০২০ সালে দিল্লিতে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে ৯৬৭টি, জয়পুরে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে ৪০৯টি, মুম্বইতে ধর্ষণের ঘটনা ঘটে ৩২২টি, বেঙ্গালুরুতে সংখ্যাটা ১০৮টি। সেদিক থেকে কলকাতায় ধর্ষণের সংখ্যা ছিল ১১। এদিকে অপহরণের ঘটনাতেও কলকাতার থেকে এগিয়ে দিল্লি, মুম্বই, জয়পুর, লখনউ-সহ দেশের নানান শহর। ২০২০ সালে কলকাতায় ৩০৮টি অপহরণের ঘটনা ঘটেছে।

সার্বিক ভাবে কলকাতায় প্রতি ১ লক্ষ মানুষ পিছু অপরাধের হার ১২৯.৫। সেখানে দিল্লিতে প্রতি ১ লক্ষ মানুষ পিছু অপরাধের হার ১৬০৮.৬, চেন্নাইতে সেই হার ১৯৩৭.১, আহমেদাবাদে ১৩০০, সুরাতে ১৩০০ এবং মুম্বইতে প্রতি ১ লক্ষ মানুষ পিছু অপরাধের হার৩১৮.৬। তবে কলকাতায় অপরাধের ঘটনা কম ঘটলেও, গোটা রাজ্যের অন্যান্য জেলাতে অপরাধ প্রবণতা ক্রমে বেড়েই চলেছে।

You might also like
Comments
Loading...