সব খবর সবার আগে।

টিকার দুটি ডোজ যথেষ্ট নয়, বুস্টার ডোজ নিতে হতে পারে, ইঙ্গিত দিলেন এইমস প্রধান রণদীপ গুলেরিয়া

সদ্যই দেশে ১০০ কোটি টিকাকরণের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করেছে দেশ। অর্থাৎ দেশের বেশিরভাগ মানুষই টিকার অন্তত একটি ডোজ পেয়েছেন। কিন্তু তবুও যেন আশঙ্কা কাটছে না সংক্রমণের প্রতিরোধ নিয়ে।

এখন গোটা বিশ্বে আলোচনা চলেছে বুস্টার ডোজ নিয়ে। এবার এই এই বুস্টার ডোজ নিয়ে মুখ খুললেন এইমস প্রধান ডঃ রণদীপ গুলেরিয়া। তিনি ইঙ্গিত দেন এক বছর পর হয়ত দেশে বুস্টার ডোজও দেওয়া হতে পারে।

এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন যে আগামী বছর হয়ত করোনা টিকার বুস্টার ডোজ দেওয়ার দরকার হতে পারে। এদিন শিশুদের টিকাকরণের প্রসঙ্গে তিনি বলেন যে দেশজুড়ে শিশুদের টিকাকরণ হয়ত শীঘ্রই শুরু হতে পারে।

বুস্টার ডোজ দেওয়া নিয়ে ঠিক কী বলেছেন গুলেরিয়া?

তিনি বলেন, “আমরা অ্যান্টিবডির বিষয়ে বিচার করে বুস্টার সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নেব না। এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে সময় দেখে। অর্থাৎ দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার কতদিন পরে সেটা দেওয়া যেতে পারে তা বিবেচনা করা হতে পারে। সাধারণ ভাবে বলা যায়, অন্তত এক বছর পরে এনিয়ে ভাবনাচিন্তা করা যাবে”।

তবে এখনই বুস্টার ডোজ দেওয়া নিয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বাল যাবে না বলেই জানান ডঃ গুলেরিয়া। তাঁর মতা, এখনও অনেক তথ্যের প্রয়োজন। তিনি এও মনে করিয়ে দেন যে ব্রিটেনে করোনা সংক্রমণ বাড়লেও মৃত্যু ও হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার ঘটনা কিন্তু বাড়েনি। গত বছরের ডিসেম্বর থেকে সেদেশে টিকাকরণ শুরু হয়।

এইমস প্রধান বলেন যে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার ঘটনা যদি আর না বাড়ে, তাহলে ধরে নেওয়া যেতে পারে যে টিকার দুটি ডোজ কার্যকর। তিনি জানান, “যদি তেমনই ঘটে, তাহলে ধরে নিতে হবে আমরা সেফ জোনেই রয়েছি। কিন্তু যদি ভাইরাস ফের মিউটেট করতে শুরু করে, তাহলে আগে হোক বা পরে বুস্টার ডোজের কথা ভাবতেই হবে”।

You might also like
Comments
Loading...