সব খবর সবার আগে।

চীনের গতিবিধি মাপতে টহল দেবে যুদ্ধবিমান? তিন বাহিনীর প্রধানের সঙ্গে বৈঠকে সিদ্ধান্ত প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর

গত ১৫ই জুন চীনের কাপুরুষোচিত হামলার পর থেকে যোগ্য জবাব দেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারতীয় সেনা। চীন সেনার গতিবিধির উপর নজর রাখতে ইতিমধ্যেই লাদাখের বিভিন্ন জায়গায় যুদ্ধবিমান নিয়ে টহলদারি চালিয়ে যাচ্ছে ভারত। এদিন তিন বাহিনীর প্রধান ও চিফ অফ ডিফেন্স কর্তাদের সাথে বৈঠকের পর এমন সিদ্ধান্তে উপনীত হন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। সূত্রের খবর, এই বৈঠকে লাদাখ সীমান্তে ভারতীয় সেনাকে চীনের মোকাবিলায় আরও বেশি স্বাধীনতা দেওয়া হবে বলেও জানা গেছে।

লাদাখের বিভিন্ন জায়গায় চিনের কর্মকান্ডের উপর নজর রাখতে বেশ কিছুদিন ধরেই যুদ্ধবিমান নিয়ে নজরদারী শুরু করেছে ভারতীয় বায়ুসেনা। শুধু স্থলপথে নয়, তিব্বতে দিকে আকাশপথেও চীনের গতিবিধির উপরও নজরদারী চালাচ্ছে ভারত। আজকের বৈঠকে সেই টহলদারি জারি রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।

এছাড়া লেহর আকাশে ইতিমধ্যেই দেখা মিলেছে ভারতীয় বায়ুসেনার অ্যাপাচি হেলিকপ্টার এবং উন্নত মিগ -২৯ এস -এর। বায়ুসেনার সদ্য কেনা এই অ্যাপাচি হেলিকপ্টারটিকে বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী ও উন্নত মানের আক্রমণকারী হেলিকপ্টার হিসেবে গণ্য করা হয়। এই হেলিকপ্টার যুদ্ধ ট্যাঙ্ককেও গুঁড়িয়ে দিতে সক্ষম। নিয়ন্ত্রণ রেখায় চীন সেনাবাহিনী ট্যাঙ্ক মোতায়েন করেছে, এই খবর পাওয়ার পরই অ্যাপাচি হেলিকপ্টার নিয়ে নজরদারী শুরু করেছে ভারতীয় বায়ুসেনা।

চীনের সঙ্গে সোমবার ১৫ই জুন রাতে সংঘর্ষ বাঁধে ভারতীয় সেনার। যার জেরে দুপক্ষেরই সেনারা ক্ষতিগ্রস্ত হন। চীনের হামলায় ভারতীয় এক কর্নেল সহ ২০ জন জওয়ান শহীদ হন এবং ভারতের পাল্টা জবাবে চীনের তরফে ৪৩ জন সৈনিক মারা যান বলে খবর পাওয়া গেছে। সূত্র অনুযায়ী, চরম আবহাওয়া ও প্রতিকূলতার মধ্যেও দেশমাকে রক্ষা করতে বদ্ধপরিকর ভারতীয় জওয়ানরা।

বর্তমান পরিস্থিতির নিরিখে ভারতীয় সেনাকে আরও বেশি স্বাধীনতা দেওয়ার কথা ভাবছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই বিষয়ে খুব দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলেও দপ্তর সূত্রে জানানো হয়েছে। পাশাপাশি লাদাখে সেনাবাহিনী মোতায়েন করার ক্ষেত্রে সমস্ত রকম স্বাধীনতা দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রের তরফে।

এর আগে কাশ্মীর থেকে বিপুল সংখ্যক সেনাকে লাদাখ সীমান্তে নিয়ে আসা হলেও দু’পক্ষের শান্তি প্রক্রিয়ার দরুন তাদের মোতায়েন করা হয়নি। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে পুনরায় সেই সেনাদের সীমান্তে মোতায়েন করা হচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে । এছাড়াও অতিরিক্ত ২০০০ আইটিবিপি জওয়ানকে লাদাখে স্থানান্তরিক করা হবে বলেও জানা গেছে।

You might also like
Leave a Comment