সব খবর সবার আগে।

নৃশংস! ঝাড়খণ্ডে উদ্ধার নগ্ন, মুণ্ডচ্ছেদ করা মহিলার দেহ, ফেরার অভিযুক্ত শেখ বিলাল

ফের এক নৃশংস ঘটনার সাক্ষী থাকল ঝাড়খণ্ড। মুণ্ডচ্ছেদ করা এক মহিলার দেহ উদ্ধার হল ঝাড়খণ্ডের ওরমাঝি অঞ্চলে। এই ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত বিলাল খানের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ। এই ঘটনার পর থেকেই ফেরার সে।

জানা গিয়েছে, গত ৩রা জানুয়ারি ঝাড়খণ্ডের ওরমাঝি অঞ্চল থেকে এক মহিলার মুণ্ডচ্ছেদ করা দেহ উদ্ধার করে স্থানীয় পুলিশ। নগ্ন অবস্থায় মেলে ওই মহিলার দেহ। আশেপাশের অঞ্চলে খোঁজ করেও মহিলার মাথা খুঁজে পায়নি পুলিশ, এমনটাই জানা গিয়েছে। এরপর গ্রামে ওই মহিলার সম্বন্ধে খোঁজ চালাতেই জানা যায় যে চান্ত ব্লকের চাতওয়াল গ্রামের এক দম্পতির মেয়েকে বিগত বেশ কিছুদিন ধরে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। খোঁজখবর নেওয়ার পর জানা যায় নিখোঁজ হও্বা ওই মেয়েটির পায়ে একটি পোড়া দাগ রয়েছে যা রান্না করার সময় পুড়ে যায়।

এরপর মুণ্ডচ্ছেদ ওই মৃতদেহের শরীরে খোঁজ করা হলে তাঁর পায়েও সেই পোড়া দাগ মেলে। এরপরই মৃতদেহের ডিএনএ-এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ওই দম্পতির ডিএনএ পরীক্ষা করালে ধরা পড়ে যে ওই মহিলাই আসলে ওই দম্পতির মেয়ে।

মৃতার মায়ের কাছ থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী, বিলাল খান ওরফে শেখ বিলালের সঙ্গেই একই গ্রামে থাকত তাঁর মেয়ে। তাদের সম্পর্ক ক্রমশ খারাপ হচ্ছিল। বেশ কিছুদিন ধরেই ঝগড়াও চলছিল। এরপরই নিখোঁজ হয় তাঁদের মেয়ে। প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী, ওই মহিলাকে হত্যা করার আগে ধর্ষণ করা হয়। চূড়ান্ত রিপোর্ট এখনও আসা বাকী,

জানা গিয়েছে, শেখ বিলালের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২, ৩২৪, ২০১ ও ১২০(বি) ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। রিপোর্ট অনুযায়ী, শেখ বিলাল সম্প্রতিই জেল থেকে ছাড়া পেয়েছিল, তবে এখন সে ফেরার। তাকে দ্রুত গ্রেফতার করার চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। এই কারণে শেখ বিলালের নামে চারিদিকে পোস্টারও লাগানো হয়েছে। তাকে যে ধরে দিতে পারবে তার জন্য ৫ লক্ষ টাকার পুরস্কারও ঘোষণা করা হয়েছে।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...