দেশ

লুকিয়ে বোনের স্নানের ভিডিও তুলেছিল যুবক, জানার পরই অভিযুক্ত যুবককে কুঠার দিয়ে কুপিয়ে খুন করল দাদা

ভাইবোনের সম্পর্ক বোধ হয় পৃথিবীর সবথেকে সুন্দর ও মধুর সম্পর্ক। রাখি বা ভাইফোঁটার দিন বোন যেমন ভাইয়ের মঙ্গল কামনা করে, ঠিক তেমনই ভাইও তাঁর বোনের রক্ষার প্রতিশ্রুতি দেয়। একজন বোনকে রক্ষা করতে এক ভাই যে কতদূর যেতে পারে, তা প্রমাণ করল উত্তরপ্রদেশের একটি ঘটনা।

উত্তরপ্রদেশের কানপুরের এক যুবককে নৃশংসভাবে খুন করার অভিযোগ উঠল দুই যুবকের বিরুদ্ধে। পরবর্তীতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের পর জানা গেল যে অভিযুক্তের বোনের স্নান করার সময় লুকিয়ে তাঁর ভিডিও করেছিল এক যুবক। সেই ভিডিও দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করতে থাকে সে। সেই কারণেই ওই যুবককে খুন করে তরুণীর দাদা। এই কাজে তাকে সাহায্য করে তাঁরই এক বন্ধু। দু’জনকেই গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশের পুলিশ।

সূত্রের খবর, গত বুধবার উত্তরপ্রদেশের কানপুরের চৌবেপুর এলাকায় এক যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। মৃতদেহ দেখেই বোঝা যাচ্ছিল যে তাকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে। জানা যায়, মৃত ওই যুবকের নাম তারাচাঁদ। এই খুনের তদন্ত চালায় পুলিশ।

ফোনের লোকেশন দেখে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। সেখানে দেখা যায় যে হর্ষিত নামের এক যুবকের সঙ্গে মৃত্যুর দিন দেখা করতে গিয়েছিল তারাচাঁদ। সেই অনুযায়ীই হর্ষিতকে আটক করে পুলিশ। জানা যায়, তার এক বন্ধু শোভিত তাঁকে সাহায্য করেছে। তাকেও গ্রেফতার করে পুলিশ।

এরপর তাদের জিজ্ঞাসাবাদে উঠে আসে চাঞ্চল্যকর তথ্য। হর্ষিত জানায়, তাঁর বোনের স্নানের ভিডিও লুকিয়ে তুলেছিল তারাচাঁদ। আর তারপর সেই ভিডিও নিয়ে ব্ল্যাকমেইল করতে থাকে সে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভিডিও ভাইরাল করে দেওয়ার তারাচাঁদ হুমকিও দেখাত বলে দাবী হর্ষিতের। এমনকি, তার থেকে ম’দ খাওয়ার টাকাও চাইত তারাচাঁদ। এর জেরে ক্ষোভের বশে তারাচাঁদকে ডেকে পাঠায় হর্ষিত আর বন্ধুর সহযোগিতায় কুঠার দিয়ে তারাচাঁদকে খুন করে সে। এই ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

এই ঘটনা প্রসঙ্গে কানপুর পুলিশের এসপি তেজ স্বরূপ সিং জানান, “অভিযুক্তদের বর্তমানে আমরা গ্রেফতার করেছি। আমাদের সন্দেহ প্রধানত শত্রুতার জেরে তারাচাঁদকে খুন করা হয়েছে। তবে বর্তমানে শ্লীলতাহানীর বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অভিযোগ যাই হোক না কেন, দোষীরা উপযুক্ত শাস্তি পাবে”।

Related Articles

Back to top button