সব খবর সবার আগে।

‘স্বচ্ছ তদন্ত’ যোগীর রাজ্যে! হাথরাসের দলিত তরুণীকে গণধর্ষণ করে খুন করা হয়েছে, দাবী সিবিআই-এর

তিনি জানিয়েছিলেন যে স্বচ্ছ তদন্ত হবে, তাই-ই হল। উত্তরপ্রদেশের হাথরাসের দলিত তরুণীকে গণধর্ষণ করে খুনই করা হয়েছিল, নিশ্চিতভাবে জানালো সিবিআই। আজ, শুক্রবার, এই মামলার চার্জশিট পেশ করা হয়েছে। অভিযুক্ত চারজনের বিরুদ্ধেই চার্জশিট পেশ করেছে সিবিআই। ঘটনার তিনমাসের মধ্যেই  চার্জশিট জমা পড়ল।

গণধর্ষণ ও খুনের অভিযোগের পাশাপাশি, ওই চার অভিযুক্তের বিরুদ্ধে দলিত নির্যাতন প্রতিরোধ আইনেও মামলা দাখিল করা হয়েছে। যদিও চলতি সপ্তাহের শুরুতে সিবিআই, আদালতের কাছে এই তদন্ত শেষ করতে আরও কিছুটা সময় চেয়ে নিয়েছিল। কিন্তু, এলাহাবাদ হাইকোর্টের লখনউ বেঞ্চ জানায়, আগামী ২৭শে জানুয়ারি এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে। তার আগেই চার্জশিট জমা দিতে হবে।

গত ২০শে সেপ্টেম্বর হাথরাসের এক দলিত তরুণীকে গণধর্ষণ করার অভিযোগ উঠে সেখানকারই উচ্চবর্ণের চার যুবকের বিরুদ্ধে। এরপর বেশ কিছুদিন হাসপাতালে ভর্তি থাকার পর মৃত্যু হয় ওই তরুণীর। ৩০ শে সেপ্টেম্বর গভীর রাতে মৃত তরুণীর মরদেহ তার পরিবারের হাতে না তুলে দিয়ে নিজেরাই পুড়িয়ে দেয় পুলিশ। এমনকি, পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয় যে ময়নাতদন্তের রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, কোনও ধর্ষণ হয়নি ওই তরুণীর।

এরপরই এই ঘটনা নিয়ে গর্জে ওঠে সারা দেশ। শুরু হয় বিক্ষোভ। এই ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়েও একাধিক প্রশ্ন ওঠে। অভিযোগ ওঠে, পুলিশের কর্তারা তরুণীর পরিবারকে ভয় দেখিয়েছে। বেশ কয়েকদিন কোনও সাংবাদিক ও রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গেও দেখা করতে দেওয়া হয়নি তার পরিবারকে। এই ঘটনা নিয়ে রাজ্যের পরিকাঠামো নিয়ে আঙুল উঠতেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেন যে এই ঘটনার পূর্ণ ও স্বচ্ছ তদন্ত হবে।

গত অক্টোবর মাসে এই ঘটনায় সিবিআই-এর তদন্তের উপর পর্যবেক্ষণের ভার দেওয়া হয় এলাহাবাদ হাইকোর্টকে। এরই মাঝে এই মামলার প্রধান অভিযুক্ত জেল থেকেই পুলিশকে চিঠি লিখে দাবী করে, তাদের চারজনকে মিথ্যে মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে। সে এও দাবী করে যে, মৃতা তরুণীর মা ও ভাই-ই নাকি তার উপর অত্যাচার করেছে। তবে মৃতার পরিবার থেকে এই অভিযোগকে নাকোচ করা হয়।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...