দেশ

ন্যক্কারজনক! চার নাবালক মিলে গণধ’র্ষ’ণ নাবালিকাকে, সাহায্য চাইলে ফের নাবালিকাকে ধ’র্ষ’ণ প্রধান শিক্ষকের

নির্জন জায়গায় নিয়ে গিয়ে এক নাবালিকাকে গণধ’র্ষ’ণের অভিযোগ উঠল চার নাবালকের বিরুদ্ধে। নাবালিকাকে ফেলে ঘটনাস্থল থেকে পালায় ওই চার অভিযুক্ত। সেখানে পৌঁছন প্রধান শিক্ষক। নাবালিকা ভেবেছিল তাকে সাহায্য করতে সেখানে গিয়েছেন শিক্ষক। কিন্তু গণধ’র্ষ’ণের পর নাবালিকাকে ফের ধ’র্ষ’ণ করেন ওই শিক্ষক, এমনটাই অভিযোগ।

এই ঘটনাটি ঘটেছে বিহারের কাইমুল এলাকায়। গত শনিবার নাবালিকার পরিবার পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে। ঘটনার তদন্তে নেমে ৫৫ বছরের ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয় এক নাবালককেও। তবে বাকি অভিযুক্তরা পলাতক। তাদের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, গত শনিবার সন্ধ্যায় বাড়ির বাইরে বেরিয়েছিল অষ্টম শ্রেণির ওই ছাত্রী। সেই সময় তাকে জোর করে একটি নির্জন জায়গায় নিয়ে যায় চার নাবালক। ওই চার নাবালকের মধ্যে দু’জন ওই কিশোরীর সহপাঠী বলে জানা গিয়েছে।

এরপর চার নাবালক মিলে ওই নাবালিকাকে ধ’র্ষ’ণ করে বলে অভিযোগ। সেই দৃশ্য দেখতে পান প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। ওই ব্যক্তিকে দেখে নাবালিকাকে ছেড়ে ঘটনাস্থল থেকে পালায় নাবালকরা। নির্যাতিতা ভেবেছিল হয়ত ওই শিক্ষক তাকে উদ্ধার করবেন। কিন্তু না, হল উল্টোটা। এরপর ওই শিক্ষকও তাকে ধ’র্ষ’ণ করেন বলে অভিযোগ।

নাবালিকাকে ধ’র্ষ’ণের পর তাকে বাড়ি পৌঁছে দেন অভিযুক্ত শিক্ষক। নাবালিকার পরিবারকে তিনি জানান যে চার নাবালকের থেকে তাদের মেয়েকে উদ্ধার করেছেন তিনি। শিক্ষক চলে গেলে পরিবারকে গোটা ঘটনাটা জানায় ওই নাবালিকা। এরপরই তার পরিবার পুলিশে অভিযোগ করে। চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় নাবালিকাকে। আপাতত সে সুস্থ রয়েছে বলে খবর। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ওই শিক্ষক ও এক নাবালককে গ্রেফতার করে পুলিশ।  

Related Articles

Back to top button