দেশ

হায়দরাবাদে করোনা আক্রান্ত মুসলিম রোগীদের জন্যে বিশেষ বিরিয়ানির আয়োজন হাসপাতালেই।

আজ থেকে শুরু হচ্ছে রমজানের রোজা। এই সময় যে সব মুসলমান রোগী করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন এবং রোজা রাখতে চাইছেন তাঁদের খাবারের দিকে বিশেষ খেয়াল রাখার নির্দেশ দিয়েছে তেলেঙ্গানা সরকার।

এই বিষয়ে বিশেষ নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে হায়দরাবাদের গান্ধী হাসপাতাল থেকেও। বলা হয়েছে সূর্যোদয়ের আগে এবং সূর্যাস্তের পরে রমজানের রোজা রাখা রোগীরা যাতে যথেষ্ট পুষ্টিকর খাবার পান সেই দিকে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে।

সূত্রের খবর সূর্যোদয়ের আগে ভোর রাত ৩.৩০ নাগাদ প্রত্যেক রোজা রাখা রোগীকে খেতে দেওয়া হবে রুটি, সাদা ভাত, ডাল এবং সবজি। একদিন অন্তর দেওয়া হবে চিকেন এবং মটনও। রোজা ভাঙার পর সন্ধেবেলা দেওয়া হবে সবজি বিরিয়ানি, টোম্যাটো চাটনি এবং চিকেন ফ্রাই। একদিন অন্তর পাবেন চিকেন বিরিয়ানি, সাদা ভাত, সবজি, ডাল এবং ডিম। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসপাতালের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘মেনু এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যাতে রোজা রাখা মুসলিম রোগীদের পুষ্টির কোনও অভাব না হয়। যথাযথ পরিমাণে যাতে তাঁরা কার্বোহাইড্রেট এবং প্রোটিন পান সেদিকেও নজর রাখা হচ্ছে।’

হাসপাতালের অন্যান্য রোগীদের প্রতিদিনের খাবারে থাকছে ইডলি, ব্রেড-জ্যাম, ভাত, সাম্বার এবং দই। আমিষ মেনুতে থাকছে দিনে একবার করে ডিম বা চিকেন কারি। এছাড়াও প্রত্যেক রোগীকে নিয়ম করে খেতে দেওয়া হচ্ছে আমন্ড, কাজু এবং খেজুর। ফলের মধ্যে দেওয়া হচ্ছে কমলা লেবু, মুসাম্বি এবং কলা। সবাই নিয়মিত পাচ্ছেন মিনারেল জলের বোতল। দিনে দু’বার দেওয়া হচ্ছে চা, দুধ এবং বিস্কুট।

রাজ্যের স্বাস্থ্য মন্ত্রী ইতালা রাজেন্দর জানিয়েছেন রোগীদের পরিষ্কার নতুন প্যাকেটে করে খাবার দেওয়া হচ্ছে। এমনকি ব্যবস্থা করা হয়েছে বিনামূল্যে WiFi পরিষেবার। রোগীদের মোবাইল ফোন ব্যবহার করারও অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

Related Articles

Back to top button