দেশ

জাঁকিয়ে পড়বে শীত, প্রবল শৈত্যপ্রবাহে কাঁপবে গোটা দেশ, জারি অরেঞ্জ অ্যালার্ট

বড়দিন কাটতেই বেশ ভালোই শীতের কম্প অনুভব করছে মানুষ। নভেম্বরের শেষ বা ডিসেম্বরের শুরুতে শীত পড়ছে না বলে যে অভিযোগ উঠছিল, তা অনেকাংশেই পূরণ হয়েছে। ইতিমধ্যেই জম্মু-কাশ্মীর, হিমাচলপ্রদেশে তুষারপাত হতে শুরু করেছে। এর জেরে তাপমাত্রা নেমেছে বেশ দ্রুত। এর জেরে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে শৈত্য প্রবাহের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। উত্তর ভারতের বিভিন্ন জায়গায় জারি হয়েছে শৈত্য প্রবাহ।

শৈত্য প্রবাহের জেরে উপত্যকাতে পড়বে ঠাণ্ডা। আইএমডি-এর মতে চলতি মাসের ২৯ থেকে ৩১ তারিখ পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন জায়গায় ৩ থেকে ৫ ডিগ্রি তাপমাত্রা নেমে যাবে। তবে মৌসম বিভাগের তরফ থেকে জানা গিয়েছে যে আগামী বছরের ২রা জানুয়ারির পর থেকে শৈত্যপ্রবাহ কমার সম্ভাবনা রয়েছে। এর জেরে উত্তর ভারতের দিল্লি-সহ বিভিন্ন জায়গায় জাঁকিয়ে শীত পড়ার সম্ভাবনা। তাছাড়া জানা গিয়েছে উত্তরপ্রদেশ, বিহার, পশ্চিমবঙ্গ, ও ওড়িশার কিছু জায়গায় নতুন করে রেকর্ড শীত পড়তে পারে বলে জানা গিয়েছে।

প্রবল শীত ও শৈত্যপ্রবাহের কারণে বিভিন্ন রাজ্যে অরেঞ্জ অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। আগামী বছরের শুরু বাড়বে তাপমাত্রা। ২৯-৩০শে ডিসেম্বর পর্যন্ত পঞ্জাব, হরিয়ানা, দিল্লি, রাজস্থান, উত্তরাখণ্ড, হিমাচলপ্রদেশে পরাবে জাঁকিয়ে শীত। বিভিন্ন এলাকায় ঘন কুয়াশাও দেখা দিতে পারে বলে জানিয়েছে মৌসম ভবন।

আইএমডি-র তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে হিমালয়ে বৃষ্টি ও তুষারপাতের কারণে তাপমাত্রা হঠাৎই এক ধাক্কায়৩-৫ ডিগ্রি নেমে গিয়েছে। ইতিমধ্যেই কাশ্মীরের গুলমার্গ, সোনমার্গ, পহেলগামে এক ইঞ্চি তুষারপাত হয়েছে।

Related Articles

Back to top button