সব খবর সবার আগে।

দিনমজুরি করছেন দীপিকা পাড়ুকোন! ভুয়ো মনরেগা কার্ড নিয়ে বিপত্তি

গ্রামের পরিযায়ী শ্রমিকের মনরেগা কার্ডে দীপিকা পাড়ুকোনের জ্বলজ্বলে ছবি বিদ্যমান, যা দেখে চোখ কপালে উঠেছে আধিকারিকদের। শুধুমাত্র দীপিকা পাড়ুকোন না, আরও অনেক মনরেগা কার্ডে বিভিন্ন বলিউড তারকাদের ছবি দেখা যাচ্ছে। অবাক করা ঘটনাটি ঘটেছে মধ্যপ্রদেশের খারগোন জেলায়।

এই জেলায় অন্তত ১০ থেকে ১১ টি মনরেগা (মহাত্মা গান্ধী ন্যাশনাল রুরাল এমপ্লয়মেন্ট গ্যারান্টি অ্যাক্ট) কার্ডের হদিশ পাওয়া গিয়েছে যেখানে বিভিন্ন বলি তারকাদের ছবি রয়েছে আর তা দেখে সরকারি আধিকারিকরা রীতিমত তাজ্জব হয়ে গিয়েছেন। অভিযোগ যে এই সকল ভুয়ো কার্ড দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা তোলা হয়েছে।

এই জেলার সোনু শান্তিলাল নামে এক ব্যক্তির স্ত্রীর নামে যে কার্ডটি রয়েছে সেখানে দেখা যাচ্ছে দীপিকা পাড়ুকোনের ছবি। এলাকার একটি ড্রেন তৈরির কাজের জন্য এই কার্ড দেখিয়ে টাকা পাচ্ছেন তিনি।ঝির্নিয়া পঞ্চায়েতের পিপারখেড়া নাকা গ্রাম থেকে এই কার্ডগুলি দেখিয়ে প্রতিদিন টাকাও তোলা হচ্ছে।

এই খবর সামনে আসতেই টনক নড়েছে সরকারি কর্তাব্যক্তিদের। তারা বলছেন যে, যে কাজ কখনো হয়নি সেই কাজের জন্য টাকা দেওয়ার নাম করে এসব কার্ড তৈরি হচ্ছে।এই সব কার্ড দেখিয়ে দিনের পর দিন লাখ লাখ টাকা তোলা হয়েছে বলে অভিযোগ তাঁদের। যেমন পুকুর ও খাল খননের নামে প্রতি মাসে মনোজ দুবের নামে প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা তোলা হয়েছে।

অন্যদিকে যাদের নামে এই কার্ড তারা বলছেন যে তারা এই কার্ড তৈরির ব্যাপারে কিছুই জানেন না।মনোজ দুবে জানিয়েছেন যে তার এই কার্ডের কোন প্রয়োজনই নেই কারণ তার নিজের ৫০ একর জমি রয়েছে এবং তিনি নিজে কোনদিন এই কার্ড তৈরি করার জন্য আবেদন জানাননি। অন্যদিকে সোনু শান্তিলালের অভিযোগ এই কাজের পিছনে পঞ্চায়েত সেক্রেটারি ও এমপ্লয়মেন্ট অ্যাসিস্ট্যান্ট যুক্ত।

গোটা ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন এবং জেলা পঞ্চায়েতের সিইও একটি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।কোথায় কীভাবে এই কাজগুলো তৈরি হয়েছে তা তদন্ত করে দেখা হবে এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মনরেগা প্রকল্পের আওতায় এই গ্রাম পঞ্চায়েতকেই ১০০ শতাংশ কাজ হওয়ার জন্য কিছুদিন আগে প্রশংসা করা হয়েছিল। এখন আসল ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই তৈরি হয়েছে বিতর্ক।

You might also like
Comments
Loading...
Share