সব খবর সবার আগে।

‘কুছ নেহি হোগা, বেটা, একদম আরামসে’ শুনে আত্মসমর্পণ করল জঙ্গি! মানবিকতার নজির জ‌ওয়ানের

প্রত্যেকটা মুহূর্তে উত্তেজনা! কি হয় কি হয়! আদৌ কি আত্মসমর্পণ করবে? অনেক প্রশ্ন! ওপরে খোলা আকাশ, নীচে ঘন গাছপালা।

নিজেদের স্নায়ুর ওপর অসম্ভব নিয়ন্ত্রণ রেখে একজন স্বর চাপিয়ে বলছে – ‘কোহি গোলি নেহি চালায়েঙ্গে (কেউ গুলি করবে না)’। শুক্রবার বদগামে এক জঙ্গির আত্মসমর্পণের এমন নাটকীয় ভিডিয়োই প্রকাশ্যে আনল ভারতীয় সেনা (Indian army)।

কি দেখা গেছে সেই ভিডিওটিতে?

খুব সম্ভবত ফলের বাগানে দাঁড়িয়ে এক জঙ্গিকে আত্মসমর্পণের কথা বলছেন ভারতীয় সেনার এক জওয়ান। তাঁর হাতে একটি অ্যাসল্ট রাইফেল এবং পরিধানে সুরক্ষাবর্ম। তিনি সমানে বলছেন, ‘জাহাঙ্গির (জঙ্গিরা নাম), তোমার কাছে আর্জি জানাচ্ছি, অস্ত্র ফেলে দাও এবং হাত তুলে বাইরে এসে যাও। নিজের স্বার্থে, পরিবারের স্বার্থে। কিছু হবে না। সেই নিশ্চয়তা দিচ্ছি। নিজের অস্ত্র ফেলে দে, হাত উপরে কর এবং আত্মসমর্পণ করে দে।’

এই কথা বলতেই সামনের দিকে এগিয়ে যেতে থাকেন ওই জ‌ওয়ান। জওয়ানের কথায় ভরসা পেয়ে জাহাঙ্গির ভাট (Jahangir Bhat) নামে ওই জঙ্গি সামনের দিকে এগিয়ে আসার সঙ্গে তিনি বলেন, ‘কেউ গুলি করবে না।’ সেই কথা বলার ফাঁকেই শুধু প্যান্ট পরে বেরিয়ে আসে ওই জঙ্গি। তখন জওয়ানকে বলতে শোনা যায়, ‘আর কেউ কি আছে? কোনও অস্ত্র আছে? এদিকে চলে এস।’ একইসঙ্গে আশ্বস্ত করেন, ‘কুছ নেহি হোগা, বেটা। একদম আরামসে। (কিছু হবে না। একেবারে ভয় না পেয়ে এস)। সাবাশ। সাবাশ। চলে এস।’

আত্মসমর্পণ করার পর‌ই জওয়ানদের সামনে এসে ওই জঙ্গি বসে পড়ে। জওয়ানরা তাকে শান্ত করে বলেন, ‘জল দাও। সবাই দূরত্ব বজায় রাখ। শান্ত থাক। নিজের জার্সি খুলে ফেল। কিছু হবে না। তুমি দারুণ কাজ করেছ।’

ভারতীয় সেনার প্রকাশ করা আরও একটি ভিডিও-এ জাহাঙ্গিরের বাবাকেও দেখা যায়। ছেলের আত্মসমর্পণের পর কিছুটা স্বস্তি পান তিনি। জওয়ানদের সঙ্গে কথা বলতেও দেখা যায় তাঁকে। জড়িয়ে ধরেন ছেলেকে। তারইমধ্যে জওয়ানদের পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করেন তিনি। তা আটকানোর চেষ্টা করেন ভারতীয় জওয়ানরা। এক জওয়ান বলেন, ‘আপনার ছেলেকে বলুন, দুর্দান্ত কাজ করেছেন। ওর অতীতের সব ভুল ক্ষমা করে দেওয়া হবে। কিন্তু জঙ্গিদের সঙ্গে ওকে আর যেতে দেবেন না।’

You might also like
Comments
Loading...
Share