দেশ

ট্রেনে উঠেই ঘুমিয়ে পড়েন? কুছ পরোয়া নেহি! এবার গন্তব্য স্টেশন আসার আগেই ডেকে দেবে ওয়েক আপ অ্যালার্ম

দূরপাল্লার স্টেশনে ভ্রমণ করার সময় অনেকেরই মনে বেশ চিন্তার উদয় হয় যে সঠিক স্টেশনে ঠিক সময়মত নামতে পারব তো! অনেকেই বারবার ট্রেনের জানলা দিয়ে স্টেশনের নাম দেখতে থাকেন। কারণ দূরপাল্লার ট্রেনে অনেক মালপত্র নিয়ে নামা বেশ ঝক্কি।

আর যদি ট্রেনে ভ্রমণের মাঝেই আপনি ঘুমিয়ে পড়েন, তাহলে তো সমস্যা আরও বাড়ে বই কি। এবার যাত্রীদের এই চিন্তা থেকে মুক্তি দিতে ভারতীয় রেল চালু করল এক নতুন পরিষেবা, নাম ‘ওয়েক আপ অ্যালার্ম’।

অনেকেই দূরপাল্লার ট্রেনে উঠে সহযাত্রীদের বারবার জিজ্ঞাসা করেন কোন স্টেশন এল। অনেকেই মোবাইল অ্যাপে ট্রেনের গতিবিধি ও স্টেশনের দূরত্ব দেখে নিতে পারেন। কিন্তু নেটওয়ার্কের সমস্যা থাকলে ভরসা সেই সহযাত্রীর উপর বা মোবাইল অ্যালার্মেই।

এর উপর যদি ট্রেন লেট-এর সমস্যা থাকে, তাহলে তো ভোগান্তি আরও বাড়ে। এই সমস্ত ঝক্কি থেকে যাত্রীদের মুক্তি দিতেই এবার ভারতীয় রেল নিয়ে এলো  ‘ওয়েক আপ অ্যালার্ম’-এর পরিষেবা। এই পরিষেবার আরও এক নাম ‘ডেসটিনেশন অ্যালার্ট’। এই পরিষেবার মাধ্যমে আপনার গন্তব্যের স্টেশন আসার আধ ঘণ্টা আগেই আপনাকে সচেতন করে দেবে এই অ্যালার্ম।

এই বিশেষ সুবিধা পেতে তিনটি পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন যাত্রীরা। ১৩৯ নম্বরে ফোন করে আইভিআর পদ্ধতি পেতে পারেন। এছাড়াও কাস্টমার কেয়ার প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলা যেতে পারে। এক্ষেত্রে টিকিটে দেওয়া পিএনআর নম্বর, গন্তব্যের স্টেশনের এসটিডি কোড, আর নাম দিতে হবে।

আর যদি আইভিআর পদ্ধতি অবলম্বন করতে চান, তাহলে ৭ ডায়াল করতে হবে। স্টেশনের নাম জানাতে হবে। এই পদ্ধতিও যদি পছন্দ না হয়, তাহলে ১৩৯ নম্বরে এসএমএস পাঠিয়ে নাম নথিভূক্ত করা যেতে পারে। এরপর টিকিটে রেজিস্টার করা নম্বরে রেলের পক্ষ থেকে ফোন যাবে। গন্তব্যের স্টেশনে পৌঁছানোর ঠিক আধঘণ্টা আগেই এই ফোন যাবে যাতে আপনি আগের থেকেই গন্তব্য স্টেশনে নামার প্রস্তুতি শুরু করতে পারেন।

Related Articles

Back to top button