সব খবর সবার আগে।

প্রথম নির্বাচনী বক্তৃতা দিলেন কমলা হ্যারিস, বললেন ভারতীয় মায়ের কথা

ইতিমধ্যেই আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হয়ে আলোচনার শীর্ষে উঠে এসেছেন কমলা হ্যারিস। এবার প্রথম নির্বাচনী বক্তৃতায় নিজের অরিজিন জানালেন কমলা। “আমার মা ও বাবা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এই দেশে এসেছিলেন। তাঁদের দু’জনের লক্ষ্য ছিল উন্নত মানের শিক্ষা লাভ। এই দেশ মিলন ঘটিয়েছে তাঁদের।” বললেন কমলা।

ক্যালিফোর্নিয়ার সেনেটর কমলা হ্যারিসকে ডেমোক্রেটিক দলের পক্ষ থেকে ভাইস প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেছেন ওই দলেরই মার্কিন প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী জো বিডেন। এইবার শুরু হল দীর্ঘ নির্বাচনী লড়াই।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত কমলার মা ভারতীয় এবং বাবা জামাইকান। ষাটের দশকের নাগরিক অধিকার সংক্রান্ত আন্দোলন তাঁদের কাছাকাছি এনে দেয়। ওকল্যান্ডের রাস্তায় ছাত্র মিছিলে তাঁদের দেখা, ন্যায়ের দাবিতে তাঁরা গলা তুলেছিলেন। তারপর তাঁরা একসঙ্গে জীবন শুরু করেন।

সারা জীবন অসংখ্য উপাধিতে ভূষিত হয়েছেন কমলা। তবে তিনি যদি আমেরিকার ভাইস প্রেসিডেন্ট হতে পারেন তবে তা তাঁর কাছে সবচেয়ে সম্মানীয় হবে বলে জানিয়েছেন এই ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন সেনেটর। তবে তাঁর নিজের পছন্দ যখন তাঁকে তাঁর দুই সৎ ছেলেমেয়ে মোমালা বলে ডাকে।

এছাড়াও নির্বাচনী বক্তৃতায় বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে এক হাত নিয়েছেন কমলা। ট্রাম্প করোনা নিয়ে গুরুত্বই দেননি। সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং, মাস্ক পরা- সব কিছু হালকাভাবে নিয়েছিলেন। সেই জন্য এখন আমেরিকার প্রায় ৫০ লক্ষ মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়ে গিয়েছেন। প্রতি ৮০ সেকেন্ডে একজন করে মার্কিন কোভিডে মারা যাচ্ছেন, এর কারণ হলো ট্রাম্প মনে করছেন যে তিনি বিশেষজ্ঞদের থেকে বেশি ভালো বোঝেন, ট্রাম্পকে রীতিমতো ঝাঁঝালো ভাষায় আক্রমণ করেছেন কমলা। তাই এইবার মার্কিন নির্বাচনে রিপাবলিকান বনাম ডেমোক্রেটিক দলের যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে চলেছে একথা বলাই বাহুল্য।

You might also like
Leave a Comment