সব খবর সবার আগে।

কর্মহীনদের জন‍্য প্রধানমন্ত্রীর গরিব কল্যাণ যোজনার শীর্ষস্থানে অপ্টিক ফাইবার কেবল বসানোর কাজ! বিনিয়োগ ৬ হাজার কোটি!

লকডাউনের জেরে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিল ভারতীয় অর্থনীতি। ধ্বংসের মুখে পৌঁছে গিয়েছিল কত শত লোকের জীবিকা। দেশ রক্ষায় আত্মনির্ভর ভারত প্রকল্প চালু করেন প্রধানমন্ত্রী। করোনার কারণে তৈরী হ‌ওয়া পরিস্থিতিতে কর্মহীন কয়েক লাখ পরিযায়ী শ্রমিকদের কথা মাথায় রেখেই গত ২০ জুন প্রকল্প গরিব কল্যাণ যোজনার সূচনা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সেই উদ্যোগেই সওয়ার হয়ে শুরু হল অপ্টিক ফাইবার কেবল বসানোর কাজ।

মাত্র ৩ সপ্তাহ আগে এই যোজনা শুরু হলেও ইতোমধ্যেই ৬ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করে ফেলেছে সরকার। মোট ১২৫ দিনের প্রকল্পে ৫০ হাজার কোটি টাকা খরচের জন্যে প্রস্তুত রয়েছে কেন্দ্র সরকার। করোনার দাপটে শহরের কাজ ছেড়ে যে সব পরিযায়ী শ্রমিকরা বাধ্য হয়েছিলেন গ্রামে পরিবারের কাছে ফিরে যেতে তাঁদের যাতে অর্থাভাবে কষ্ট পেতে না হয়, তা নিশ্চিত করতেই এই প্রকল্পের ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মোট ২৫টি স্কিমের অন্তর্গত ৫ কোটি ৯৮ লাখ দিনের কাজের সুযোগ তৈরি করা হয়েছে।

এই অল্প সময়ের মধ্যেই সবচেয়ে বেশি কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দিয়েছে অপ্টিক ফাইবার কেবল লাগানোর কাজ। সরকারি নথি অনুযায়ী এখনও পর্যন্ত ৯৩,৩৯০ কাজের সুযোগ হয়েছে এই প্রকল্পে। গ্রামের গরিব মানুষদের জন্যে বাড়ি বানানোর কাজ শুরুতে গতি না পেলেও পরবর্তী সময়ে এই ক্ষেত্রে ৬৪,৭৫৬ অ্যাক্টিভিটি হয়েছে। পরিবর্তিত সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ইতোমধ্যে গ্রামীণ ভারতেও বহু কাজ এখন অনলাইনেই হচ্ছে। করোনাভাইরাস থাবা বসানোর পর সেই কাজ আরও বেড়ে গিয়েছে। অতএব এই সময়ে অপ্টিক ফাইবার বসানোর কাজ বেশি গুরুত্ব পাবে বলেই মনে করা হচ্ছে।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Leave a Comment