সব খবর সবার আগে।

মলডোতে শেষ হল ভারত-চীন সেনা বৈঠক, ফলাফল এখনও অজানা, উত্তেজনা চরমে

লাদাখ নিয়ে চীনের সঙ্গে রীতিমতো যুদ্ধের পরিস্থিতিতে চলে গিয়েছে ভারত। এই অবস্থায় শনিবার ভারত ও চীন নিজেদের পারস্পরিক অবস্থান সম্পর্কে আলোচনা করতে ও নিজেদের মধ্যে চলা বিবাদের মীমাংসা করতে বৈঠকে বসে।

সেনাবাহিনী সূত্রে খবর, এ দিন সীমান্তে আসল নিয়ন্ত্রণরেখা (LAC) বরাবর চীনের অংশে অবস্থিত মলডো-তে এই আলোচনাসভা আয়োজিত হয়। নির্ধারিত সময়ের থেকে দুই ঘণ্টা দেরিতে সকাল ১১.৩০ নাগাদ বৈঠক শুরু হয়। বৈঠকে ভারতের সেনা প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন ১৪ কর্পস কম্যান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল হরিন্দর সিং এবং চীনের তরফে প্রতিনিধিত্ব করেন পিপলস লিবারেশন আর্মির সাউথ শিনজিয়াং মিলিটারি রিজিয়ন-এর মেজর জেনারেল লিউ লিন।

সকালেই শেষ হয়েছে সেই বৈঠক। যদিও এখনও জানা যায়নি এই বৈঠকের ফলাফল কী হয়েছে। আলোচনা শেষ করে লেহ-তে সেনাঘাঁটিতে রওনা দেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রতিনিধিদলের সদস্যরা। এ দিনের আলোচনার ফলাফল সম্পর্কে ভারতীয় সেনাপ্রধান জেনারেল এম এম নরভানে এবং নর্দার্ন আর্মি কম্যান্ডার লেফ্টেন্যান্ট কম্যান্ডার ওয়াই কে জোশিকে সবিস্তারে জানাবেন প্রতিনিধি দলের সদস্যরা। বৈঠকের ফলাফল সম্পর্কে জানানো হবে কেন্দ্রীয় বিদেশ মন্ত্রককেও।

ভারতীয় সেনা থেকে পাওয়া বিবৃতিতে জানা গিয়েছে, ‘বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে চীনের সঙ্গে কথা চলেছে ভারতের। এই অবস্থায় কোনও রকম অনুমান ও ভিত্তিহীন খবর যেন সংবাদমাধ্যম না প্রচার করে।’

অন্যদিকে গতকাল শুক্রবার ভারত ও চীনের মধ্যে কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা হয়েছে। ভারতের হয়ে বৈঠকে প্রতিনিধিত্ব করেন যুগ্ম সচিব (পূর্ব এশিয়া) নবীন শ্রীবাস্তব। চীনের হয়ে উপস্থিত ছিলেন বিদেশমন্ত্রকের ডিরেক্টর জেনারেল উ জিয়াংঝাও।

প্রায় এক মাস ধরে সীমান্তে গালওয়ান উপত্যকা ও প্যাংগং লেকের কাছে চার জায়গায় মুখোমুখি অবস্থান করছে ভারত ও চীন সেনা। কিছু সংখ্যক চীন সেনা যে ভারতীয় সীমান্তে প্রবেশ করেছে, সেটাও স্বীকার করেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। যদিও ভারত প্রয়োজনীয় সব পদক্ষেপ নিয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

You might also like
Leave a Comment