সব খবর সবার আগে।

মোদী সরকারেই আস্থা দেশবাসীর। ‘মুড অফ দ্য নেশন’-এর সমীক্ষা সেই বার্তায় দিল!

প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর একাধিক সিদ্ধান্তে পাশে রয়েছে দেশবাসী। ‘মুড অফ দ্য নেশন’ এর সমীক্ষায় সেই ছবিই ধরা পড়েছে। সাম্প্রতিক পরিস্থিতি নিয়ে একাধিক বার্তা দিয়েছে। সদ্য ভারত-চীন সংঘাতের আবহে মোদী সরকারের পাশে কত শতাংশ দেশবাসী রয়েছে তা নিয়ে উঠে আসছে বহু তথ্য। চলুন তাহলে দেখে নেওয়া যাক সমীক্ষার তথ্য! সমীক্ষায় দেখা গেছে ৭২ শতাংশ মানুষ মনে করেছেন যে ভারতীয় , সেনার সেই ক্ষমতা রয়েছে যার দ্বারা নস্যাৎ করা যাবে চৈনিক ড্রাগন বাহিনীকে। মুড অফ দ্যা নেশন ২০২০ এমনই বার্তাই দিচ্ছে।

দেশের ৮৪ শতাংশ মানুষ মনে করেন যে চীন অবিশ্বাসের পাত্র। তাই পড়শি দেশকে কোনও মতেই বিশ্বাস করা যায় না। মুড অফ দ্যা নেশন ২০২০ এর সমীক্ষা বলছে, দেশের ৬৭ শতাংশ মানুষ চীনা পণ্যের জায়গায় দেশীয় পণ্যের জন্য পকেটের টাকা বেশি খরচ করতে প্রস্তুত। অর্থাৎ মোদীর আত্মনির্ভর প্রকল্পের পাশেই রয়েছেন দেশবাসী।

মাত্র গত মাসেই কেন্দ্র জানিয়েছে যে চীনের একাধিক অ্যাপ ভারতে নিষিদ্ধ। টিকটকের মতো ভারতে অত‍্যাধিক জনপ্রিয় অ্যাপ‌ও ছিল সেই তালিকায়। প্রথম ধাপে ৫৯ টি ও পরের একাধিক ধাপে বহু চিনা অ্যাপ ভারতে নিষিদ্ধ হয়। তার জেরেই ভারতের ৯১ শতাংশ মানুষ মোদীর পাশে রয়েছে। ৯১ শতাংশ মানু, মনে করেন মোদী সরকার চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করে কার্যকরী ভূমিকা পালন করেছেন।

দেশের ৬৯ শতাংশ মানুষ এখনও মোদীর পাশে রয়েছেন। সমীক্ষা বলছে, মোদী লাদাখ সংঘাত নিয়ে যা যা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তার সমস্তটাই সঠিক বলে মনে করছেন ৬৯ শতাংশ মানুষ। সমীক্ষা বলছে দেশের ৫৯ শতাংশ মানুষ মনে করেন যে চীনের সঙ্গে ভারতের যুদ্ধ হওয়া উচিত। আর তাতে তারা কেন্দ্রের সমর্থনে থাকবে।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Leave a Comment