সব খবর সবার আগে।

Covid19 Crisis: করোনা মোকাবিলায় সাংসদ থেকে রাজ্যপাল, একবছরের জন্য ৩০% বেতন‌ কমছে সকলের

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার ধীরে ধীরে বাড়ছে। এখনো পর্যন্ত ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা ৪২৮১। দেশজুড়ে চলছে লকডাউন। রাজ্যে রাজ্যে খোলা হয়েছে করোনা প্রতিরোধকারী তহবিল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও PM CARES নামে একটি তহবিল খুলেছেন। সাংসদরা নিজেদের সাংসদ তহবিল থেকে অনুদানও দিয়েছেন।

এবার একটি অভূতপূর্ব পদক্ষেপ নিল কেন্দ্রীয় সরকার। সোমবার সংসদ সদস্য এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রীপরিষদের মন্ত্রীদের বেতন এক বছরের জন্য ৩০% কমিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকার জানিয়েছেন যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভা সংসদ আইন, ১৯৫৪ অনুযায়ী সদস্যদের বেতন, ভাতা ও পেনশন সংশোধন করে একটি নতুন অধ্যাদেশ অনুমোদন করেছে। সংসদ সদস্যদের ভাতা ও পেনশন ৩০% হ্রাস করা হয়েছে এক বছরের জন্য , যা এই বছরের ১ এপ্রিল থেকে কার্যকর হবে।

সরকারী কোষাগার দ্বারা সংরক্ষিত অর্থ করোনা ভাইরাসের উত্থান এবং পরবর্তী অর্থনীতির পতনের বিরুদ্ধে সরকারের লড়াইয়ে ব্যবহৃত হবে।

‘রাষ্ট্রপতি, ভাইস প্রেসিডেন্ট, রাজ্যগুলির গভর্নররা স্বেচ্ছায় বেতন ছেড়ে দেওয়াকে একটি সামাজিক দায়িত্ব হিসাবে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।এই অর্থ ভারতের একীভূত তহবিলে যাবে,’ প্রকাশ জাভড়েকার বলেন।জাভড়েকার আরও বলেছেন এই অধিবেশনটি সংসদের অধিবেশন শেষে একবার সংসদে উপস্থাপন করা হবে।তবে অধ্যাদেশ, যা অস্থায়ীভাবে এই আইনটি ছয় মাসের জন্য কার্যকর করার অনুমতি দেয়, এই পরিবর্তনের ফলে তা এখনই কার্যকর হবে। প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রীপরিষদ এবং সংসদের সদস্যদেরও বেতন কাটা হবে। অন্য সিদ্ধান্তে মোদী মন্ত্রীপরিষদ ভারতে করোনা ভাইরাসের কারণে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা পরিচালনার জন্য ২০২০-২১ এবং ২০২১-২২ এর মধ্যে এমপিল্যাড ফান্ডের সাময়িক স্থগিতাদেশ অনুমোদন করেছে। দুই বছরের জন্য এমপিল্যাড তহবিলের মোট পরিমাণ ৭৯০০ কোটি টাকা ভারতের একীভূত তহবিলে যাবে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.