সব খবর সবার আগে।

অবস্থা সংকটজনক হলেও প্রণব মুখোপাধ্যায়ের রক্তচাপ, হৃৎস্পন্দন স্বাভাবিক রয়েছে

দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের অবস্থা এখনও সংকটজনক। বুধবার দুপুরে দিল্লির সেনা হাসপাতাল তরফে জানানো হয়েছে, তাঁর রক্তচাপ, হৃৎস্পন্দন স্থিতিশীল তবে তিনি এখনও ভেন্টিলেশনেই রয়েছেন। প্রণব মুখোপাধ্যায়ের আরোগ্য কামনায় তাঁর ঢাকুরিয়ার ফ্ল্যাট ও মিরিটি গ্রামের বাড়িতে চলছে পুজো।

গত রবিবার বাথরুমে পড়ে গিয়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পান প্রণববাবু। এরপর তাঁকে দিল্লির সেনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এবং সেখানে তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। পাশাপাশি সোমবার তাঁর মাথায় অস্ত্রোপ্ৰচার করা হয়। অস্ত্রোপ্ৰচারের পর তাঁর রক্তক্ষরণ বন্ধ হতে চায় না। ফলে আরো সমস্যার সৃষ্টি হয়। কিন্তু তিনি কিভাবে বাথরুমে পড়ে গেলেন সে বিষয়ে সঠিকভাবে জানা যায়নি।

চিকিৎসকদের বক্তব্য, তিনি রক্ত পাতলা করার ওষুধ খেতেন। এমনিতেই বয়সের জন্য তার শরীরে নানান সমস্যা দেখা দিয়েছিল। এরপর এই বয়সে অস্ত্রপ্রচারের ফলে একটা রিস্কও থেকেই গেছে। তাঁরা আরো বলেছেন, একবার অস্ত্রপ্রচার করে জমাট বাঁধা রক্তকে বার করা হয়েছে। এরপর পুনরায় যদি তাঁর মাথায় রক্ত জমাট বাঁধতে শুরু করে তখন তাঁর মস্তিষ্কের ওপর চাপ সৃষ্টি হবে। যা থেকে তাঁর রিস্ক আরও বাড়তে পারে।

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, ‘তাঁর বাবা স্বাভাবিকভাবেই শ্বাস প্রশ্বাস নিচ্ছেন। কিন্তু তাঁকে ভেন্টিলেশনের সমস্ত রকম সাপোর্টে রাখা হয়েছে। সোমবার যেখানে অস্ত্রপ্রচার হয়েছিল তার উল্টোদিকে আবার রক্তক্ষরণ শুরু হয়েছে। এই মুহূর্তে নতুন করে অপারেশনের কথা ডাক্তাররা বলেনি। পাশাপাশি তাঁর অবস্থা এখন স্থিতিশীল।’

তাঁর আরোগ্য কামনায় তাঁর গ্রামের বাড়ির পাশে এক নারায়ণ মন্দিরে চলছে পূজা অর্চনা। পাশাপাশি তাঁর ঢাকুরিয়ার বাড়িতেও চলছে পুজো। তিনি যাতে খুব শীঘ্রই আবার আগের মতো সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন সেই কামনাই করছেন সবাই।

গত বছর ৮ই আগস্ট ভারতরত্ন পেয়েছিলেন প্রণববাবু। এ বছর তার স্মৃতিচারণায় মেয়ে শর্মিষ্ঠা এক টুইট বার্তায় লেখেন, ‘গত বছর ৮ই আগস্ট সব থেকে খুশির দিন ছিল কারণ বাবা ওইদিন ভারতরত্ন পেয়েছিলেন। আর এই বছর ১০ই আগস্ট বাবা গুরুতর অসুস্থ। ওনার জন্য যেটা ভালো ভগবান সেটাই করুক। আর আমাকে ভালো-মন্দ সব কিছু মেনে নেওয়ার শক্তি দিক। যারা ওনার জন্য উদ্বিগ্ন তাদের প্রতি ধন্যবাদ জানাই।’ আপাতত দিল্লির সেনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি। তাঁর শারীরিক অবস্থার ওপর নজর রাখছেন চিকিৎসকরা।

You might also like
Leave a Comment