সব খবর সবার আগে।

একটি স্বাস্থ‍্য কার্ড, একটি দেশ। ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসে ভারতকে জাতীয় ডিজিট্যাল হেলথ মিশন উপহার নরেন্দ্র মোদীর।

৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসের দিন লালকেল্লা থেকে জাতির উদ্দেশ্যে স্বাধীনতা দিবসের ভাষণে জাতীয় ডিজিট্যাল হেলথ মিশন চালু করার কথা ঘোষণা করলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন, এই প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে আসবে এক বিশাল পরিবর্তন। প্রতিটি ভারতবাসী হেলথ কার্ড পাবেন। এর ফলে হাসপাতালে ভর্তি, চিকিৎসা সহ গোটা বিষয়টাই ডিজিট্যালাইজ হবে।

বর্তমান মহামারীর পরিস্থিতিতে এখন দেশের সব নাগরিকেরই স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে আজ প্রধানমন্ত্রী স্বাস্থ্য বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা করলেন। তিনি জানিয়েছেন, ‘একটি হেলথ কার্ডেই প্রতিটি টেস্ট, প্রতিটি রোগ, সব রিপোর্ট এবং চিকিৎসকের দেওয়া প্রতিটি ওষুধের হিসেব থাকবে। যখনই একজন ব্যক্তি চিকিৎসকের কাছে বা ওষুধের দোকানে যাবেন, তাঁর হেলথ কার্ডের প্রোফাইলে সবকিছু যুক্ত হয়ে যাবে।’

এই ডিজিট্যাল স্বাস্থ্য কার্ড চালু হলে কী সুবিধা পাওয়া যাবে?

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন, ‘ডিজিট্যাল হেলথ কার্ড চালু হলে আর মেডিক্যাল রিপোর্ট সঙ্গে নিয়ে ঘুরতে হবে না। যদি একজন রোগীকে দেশের এক শহর থেকে অন্য শহরের হাসপাতালে যেতে হয়, তাহলে কার্ড সঙ্গে থাকাই যথেষ্ট। এর আগে কী চিকিৎসা হয়েছে, সেসব তথ্য ওই কার্ডের মাধ্যমেই জানা যাবে। ওষুধের দোকান ও চিকিৎসা কেন্দ্রগুলিতে ‘এক দেশ, এক হেলথ কার্ড’-এর সুবিধা পাওয়া যাবে।’

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
Comments
Loading...
Share