সব খবর সবার আগে।

“মেডিসিনে নোবেল পুরস্কার পাবেন মমতা”, কেন বললেন বিজেপি নেতা অমিত মালব্য?

তাঁর ভুবনবিখ্যাত মন্তব্যের জন্য প্রায়শই বিরোধীদের কটাক্ষের মুখে পড়তে হয় তাঁকে। কিছুদিন আগেই তাঁর “করোনাকে পাশবালিশ করে ঘুমান।” মন্তব্যের জেরে রীতিমত ট্রোলড হয়েছেন তিনি। সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রীর আরেকটি মন্তব্যের জেরে এবার বিজেপির আইটি ইনচার্জ অমিত মালব্য তাঁকে মেডিসিনে নোবেল পুরস্কার দেওয়ার আবেদন জানালেন।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গতকাল নবান্ন সভাঘরে একটি বৈঠকে বলেন, “দরজা জানালা খুলে দিলে কিন্তু ভাইরাসটা তাড়াতাড়ি বেরিয়ে যায়।” তাঁর এই মন্তব্যের পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ওঠে হাসির রোল। করোনা ভাইরাস রোধ করার এত সহজ উপায় মুখ্যমন্ত্রী বাতলে দেবেন, তা বোঝা যায়নি আগে, বলছেন নিন্দুকরা।

এবার বিরোধী শিবির থেকে এই নিয়ে মমতাকে কটাক্ষ করলেন বিজেপি আইটি ইনচার্জ অমিত মালব্য। তিনি আজ সকালে একটি টুইটে বলেছেন, “অবশেষে এপিডেমিওলজিস্ট মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ খুলেছেন। গোটা দুনিয়া এই ভাইরাসের ভ্যাকসিন আবিষ্কার করার জন্য কেন লড়াই চালাচ্ছে যেখানে দরজা জানালা খুলে রাখলেই ভাইরাস চলে যাবে? তাঁকে এর জন্য মেডিসিনে নোবেল দেওয়া যেতে পারে! বাংলাকে এই কোয়্যাক ডাক্তারের হাত থেকে বাঁচান!”

তিনি এই টুইট করার পর থেকেই রিটুইট হতে শুরু করেছে তার টুইটটি। যদিও তৃণমূলের সমর্থক ও সদস্যরা মমতার এই মন্তব্যকে ভিন্নভাবে ব্যাখ্যা করার চেষ্টা করেছেন এই বলে যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে তো এই নিদানই দেওয়া হয়েছে। অমিত বাবু হোয়াটসঅ্যাপ ইউনিভার্সিটি ফরওয়ার্ডেড মেসেজ পোস্ট করছেন বলে দাবি এই মানুষদের।

আদৌ কি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই কথা বলেছিল? বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে জানানো হয়েছিল যে এই পরিস্থিতিতে ঘরদোর সাফ সুতরো রাখতে হবে এবং জানলা দরজা খোলা রাখতে হবে (well-ventilated) যাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে আলো বাতাস ঢোকে। তার মানে এই নয় যে জানলা দরজা খোলা রাখলেই ভাইরাস তাড়াতাড়ি বেরিয়ে যাবে! মুখ্যমন্ত্রীর এমন অবিবেচকের মত উক্তিকেই হাতিয়ার করে এবার মাঠে নেমেছে বিরোধী শিবির। যদিও এই ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত তৃণমূলের কোনও আনুষ্ঠানিক বিবৃতি পাওয়া যায়নি।

You might also like
Leave a Comment