সব খবর সবার আগে।

নিষ্ঠুরতার সীমা পার! গাছের সঙ্গে বেঁধে লাঠি দিয়ে বেধড়ক মার নিরীহ হস্তিনীকে

ফের পশু অত্যাচারের জন্য ঘৃণ্য ঘটনার সাক্ষী থাকল দক্ষিণ ভারত। একটি হস্তিনীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে বেধড়ক মার দুই মাহুতের। নির্মম এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল। নিরীহ সেই পশুটির অপরাধ। সে মাহুতের নির্দেশ মতো চলেনি।

ঘটনাটি ঘটেছে তামিলনাড়ুর কোয়েম্বাটুরের থেক্কাপপট্টির শ্রীভিল্লিপুথুরে। সেখানকার অন্ডাল মন্দিরে একটি শিবির আয়োজিত হয়েছে। সেখানে প্রায় ২মাস ধরে একটি শিবির চলছে। এই শিবিরে তামিলনাড়ু ও পণ্ডিচেরীর নানান মন্দির ও মঠ থেকে ২৬টি হাতিকে আনা হয়েছে। এখানে আনা হয়েছে ১৯ বছরের ওই হস্তিনীকেও। এই শিবিরেই নির্মম অত্যাচার চালানো হয় ওই হস্তিনীর উপর।

আরও পড়ুন- দু’মাস ধরে লাগাতার ধর্ষণ, একমাসের অন্তঃসত্ত্বা নাবালিকা! গ্রেফতার অভিযুক্ত ঠিকাদার মহম্মদ ফিরোজ

জানা গিয়েছে, মাহুতের কথা অনুযায়ী চলেনি ওই হস্তিনী। এই জন্যই চরম মূল্য চোকাতে হল তাকে। ব্যাথায়-যন্ত্রণায় তীব্র চিৎকার করলেও সেই আওয়াজ মাহুতদের কান পর্যন্ত গিয়ে পৌঁছল না। গাছের সঙ্গে বেঁধে ক্রমাগত তাকে লাঠি দিয়ে মারতে থাকে মাহুতেরা।

হস্তিনীর উপর অত্যাচারের এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হন নেটবাসীরা। জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত ওই দুই মাহুতের নাম ভিনিল কুমার ও শিবপ্রসাদ। তাদের বিরদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। অন্ডাল মন্দিরের ওই শিবির চলবে দু’মাস। এটি শুরু হয়েছে গত ৮ই ফেব্রুয়ারি।

You might also like
Comments
Loading...