দেশ

সাধারণতন্ত্র দিবসের মূল ইতিহাস তো জানেন অনেকেই, তবে এই বিশেষ দিনের এই তথ্যগুলি কী জানেন?

১৯২৯ সালের ২৬শে জানুয়ারি জাতীয় কংগ্রেসের তরফে পূর্ণ স্বরাজের দাবী তোলা হয়। এরপর ১৯৫০ সালের ২৬শে জানুয়ারির দিন ভারতীয় সংবিধান গৃহীত হয়। এই তথ্য তো সকলেরই মোটামুটি জানা।

তবে এই বিশেষ দিনটির গুরুত্ব অনেক। তাই সাধারণতন্ত্র দিবস সম্পর্কে অনেক তথ্যই হয়ত অনেকেই জানেন না। সংবিধান ও সাধারণতন্ত্র দিবস সম্পর্কে আরও কিছু অজানা তথ্য আজ জেনে নেওয়া যাক-

১) ভারতের সংবিধান পৃথিবীর দীর্ঘতম হাতে লেখা সংবিধান।

২) শুধু লেখা নয়, ভারতীয় সংবিধানের মধ্যে রয়েছে নানান নকশাও। সেই নকশা করেছেন নন্দলাল বসু ও শান্তিনিকেতনের ছাত্রছাত্রীরা। এই নকশায় রয়েছে বেদ, মহাভারত ও রামায়ণের ছবি থেকে শুরু করে মহাত্মা গান্ধীর ডান্ডি অভিযান ও সুভাষ চন্দ্র বসুর ছবিও। টিপু সুলতান ও অশোকের ছবিতে সর্বধর্ম সমন্বয়ের বার্তাও রয়েছে।

৩) বিখ্যাত ক্যালিগ্রাফিস্ট প্রেম বিহারী নারায়ণ রায়জাদা পন্ডিত নেহরুর অনুরোধে দীর্ঘ ছয় মাসের প্রচেষ্টায় একা হাতে এই কাজ সম্পন্ন করেন। এই কাজের জন্য তিনি একটি টাকাও পারিশ্রমিক নেননি।

৪) ২৫১ পৃষ্ঠার আকর গ্রন্থটির ওজন তিন কিলো ৭৫০ গ্রাম।

৫) হাতে লেখা সংবিধানের প্রথম প্রতিলিপি দুটি হিলিয়াম পূর্ণ বদ্ধ পাত্রে সংরক্ষিত রয়েছে সংসদ ভবনে।

৬) সংবিধানের প্রথম প্রতিলিপি ছিল দুটি, একটি হিন্দি ও অপরটি ইংরেজিতে লেখা।

৭) ২৪শে জানুয়ারি ৩০৮ জন সদস্য এই সংবিধানে সই করেন।

৮) প্রত্যেক বছর সাধারণতন্ত্র দিবসে কোনও একজন রাষ্ট্র নায়ক আসেন প্রধান অতিথি হয়ে। ১৯৫০ সালে প্রথমবার এসেছিলেন ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট সুকর্ণ।

৯) সাধারণতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজের ট্যাবলোগুলির গতিবেগ থাকে ঘণ্টায় প্রায় পাঁচ কিলোমিটার।

১০) ১৯৫৫ সালে সাধারণতন্ত্র দিবসের উদযাপন শুরু হয় রাজপথে। এর আগে এই রাস্তার নাম ছিল কিংসওয়ে। পরবর্তীতে নাম পরিবর্তন করে এই রাস্তার নামকরণ হয় রাজপথ।

Related Articles

Back to top button