সব খবর সবার আগে।

লড়েও বাঁচাতে পারলেন না করোনা আক্রান্তকে! প্রতিশ্রুতি রাখতে না পারার কষ্ট পাচ্ছেন সোনু সুদ

ভারতবর্ষের বহু মানুষের কাছে তিনি ভগবান। নিত্যদিন সেই মতোই কাজ করে চলেছেন তিনি। প্রচুর মানুষের আশীর্বাদ, ভালোবাসায় প্রাপ্তির ঝুলিও বেশ ভরিয়েছেন। কিন্তু এরই মাঝে হতাশা‌ও গ্রাস করে তাঁকে। কিছু মানুষকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি না রাখতে পারার হতাশা,  ‌ কিছু মানুষের চলে যাওয়ার হতাশা। আর যে কারণে মন খারাপ খোদ মানুষরূপী ভগবান সোনু সুদের।

আরও পড়ুন- অপ্রতিরোধ্য সোনুর মানবসেবা! এবার হাসপাতালে অক্সিজেন প্লান্ট বসাতে চলেছেন তিনি 

কিছুদিন আগেই নিজের সর্বাত্মক চেষ্টায় নাগপুর থেকে হায়দরাদে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা করিয়ে‌ও বাঁচাতে পারেননি এক তরুণীকে। আর এবার পারলেন না এক ব্যক্তিকে। তাঁকে বাঁচাতে মরিয়া চেষ্টা করেছিলেন অভিনেতা। কিন্তু সব চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে মৃত্যু হয়েছে ওই ব্যক্তির। আর তারপর থেকেই যা ভাবাচ্ছে অভিনেতাকে। একটা পরিবারকে প্রতিশ্রুতি দিয়ে তা রাখতে না পারা যন্ত্রণা দিচ্ছে তাঁকে!

গতকাল অর্থাৎ রবিবার রাতে এই বিষয়ে টুইটারে টুইট করেন পর্দার ভিলেন তথা বাস্তবের হিরো সোনু সুদ। লেখেন, ‘দিনে ১০ বার করে ওই পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করছিলাম তাঁদের একেবারের জন্য হারালাম।। রোগীকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছিলাম। ওই পরিবারের মুখোমুখি দাঁড়াব কী করে? প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম, তাঁদের কাছের মানুষকে বাঁচিয়ে তুলব।’ তাঁর মনে হচ্ছে, তিনি যেন নিজের পরিবারের কাউকে হারালেন। অসহায় লাগছে তাঁর।

আরও পড়ুন- থানায় ওঁর বিরুদ্ধে মামলা করে রাখুন,  পরে প্রেসিডেন্সি জেলেই ওঁর ঠাঁই হবে, “কল্যাণের মন্তব্যে স্তম্ভিত”, টুইট ধনখড়ের 

প্রসঙ্গত, ভারতবর্ষে করোনা যেদিন থেকে হামলা করেছে সেই দিন থেকে সাধারণ মানুষের জন্য প্রাণপাত করে যাচ্ছেন বলিউডের এই তারকা। কখনও পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরানো তো কখনও গরিবের হাতে খাবার তুলে দেওয়া। অক্সিজেন সংকটে বিদেশ থেকে অক্সিজেন আনানো। সম্প্রতি অন্ধ্রপ্রদেশে নেল্লোরের দুটি হাসপাতালে অক্সিজেন প্লান্ট বসানোর মতো গুরু দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন এই সত্যিকারের “জননেতা।”

You might also like
Comments
Loading...