দেশ

বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা খুনে পাঞ্জাব থেকে CID-র হাতে গ্রেফতার দুই বিহারি শার্পশুটার!

অর্জুন সিং (Arjun Singh) এর ডান হাত তথা বিজেপি নেতা মণীশ শুক্লা (Manish Shukla) খুনে এবার দুজন শার্পশুটারকে গ্রেফতার করল সিআইডি। আদতে বিহারের বাসিন্দা ওই দু’জনকে পঞ্জাব (Punjub) থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতদের নাম সুজিত রাই ও রোশনকুমার রাই। পেশায় দু’‌জনেই শার্পশুটার (sharp shooter)। সিআইডি সূত্রে খবর, পঞ্জাব থেকে ধৃত ওই ২ অপরাধীকে ট্রানজিট রিমান্ডে ব্যারাকপুরে নিয়ে আসা হচ্ছে।

বিহার থেকে তারা সড়কপথে কলকাতায় আসে। সেখান থেকে খুনে ব্যবহৃত অস্ত্র তারা নিয়ে এসেছিল বলে দাবি সিআইডি–র। খুনের পর তারা ফের বিহারে চলে যায়। কিন্তু সেখানে তারা বেশি দিন থাকতে পারেনি। কারণ, তদন্তের জন্য ততদিনে বিহারে (Bihar) হাজির হয় পশ্চিমবঙ্গ সিআইডি। তাই তারা বাধ্য হয়ে পঞ্জাবে পালায়।

এই ঘটনায় ইতিমধ্যে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছে সুবোধ যাদব। সিআইডি–র তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, ঘটনার ১০–১২ দিন আগে ওই সুবোধের বাড়িতেই আস্তানা গেড়েছিল সুজিত ও রোশন। সুবোধই ওদের মণীশকে চিনিয়ে দেয়। তার নির্দেশে বেশ কয়েকবার এলাকা রেকি করে এই দু’জন। বিজেপি নেতা কোথায় কখন যেত সে সব খোঁজ–খবর নেওয়া শুরু করে।

জানা গেছে, বিহারের জেলে থাকাকালীন ‌‌‌‌‌‌‌‌সময়‌ই বিচারাধীন বন্দি সুবোধ সিংয়ের সঙ্গেই এদের আলাপ হয়। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, এই সুবোধ সিং–ই এদের মোটা টাকার বিনিময়ে মণীশ শুক্লা খুনের অপারেশনে নিয়োগ করে।

এ ঘটনায় ইতিমধ্যে ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি। তারা হল মহম্মদ খুররম খান, ভাড়াটে খুনি গুলাব শেখ, নাসির খান ও সুবোধ যাদব। যদিও মণীশ শুক্লর বাবা চন্দ্র মণি শুক্ল ৯ জনের বিরুদ্ধে পুলিশে এফআইআর দায়ের করেছেন। যাঁদের মধ্যে দু’‌জন তৃণমূলের শীর্ষ নেতাও রয়েছেন।

Related Articles

Back to top button