সব খবর সবার আগে।

ভারতের প্রতিবেশী এবং সহযোগী দেশকে পাঠানো হচ্ছে করোনার প্রতিষেধক, তালিকায় নাম নেই পাকিস্তানের

১৬ই জানুয়ারি থেকে ভারতে করোনার টিকাকরণ শুরু হয়েছে। তারপর থেকেই শুরু হয়েছে ‘ভ্যাকসিন মৈত্রী।’ ইতিমধ্যেই ভারতে উৎপাদিত করোনা প্রতিষেধক, রওনা দিয়েছে ভারতের প্রতিবেশী দেশগুলির উদ্দেশ্যে। বুধবার‌ই ভুটান আর মালদ্বীপে ভারতীয় করোনার  প্রতিষেধক পৌঁছে গিয়েছে। বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর দুই দেশে টিকা পৌঁছে যাওয়ার ছবি ট্যুইটারে শেয়ার করেছেন। উনি বলেন, ভারতীয় টিকা মালদ্বীপে পৌঁছে গিয়েছে, এটি আমাদের দৃঢ় বন্ধুত্বের সম্পর্কের নিদর্শন। ইতিমধ্যেই টিকা পেয়ে গেছে শেখ হাসিনার দেশ বাংলাদেশ‌ও।

জয়শঙ্কর একটি ট্যুইট করে লেখেন, ‘#VaccineMaitri শুরু। ভুটানে পৌঁছাল প্রথম খেপ। প্রতিবেশী প্রথম নীতির আরও একটি উদাহরণ।’ এর আগে বিদেশ মন্ত্রালয়ের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব ট্যুইট করে বলেন, ‘ভারত প্রতিবেশী এবং সহযোগী দেশকে কোভিড এর টিকা পাঠানো শুরু করে দিয়েছে। প্রথম খেপ ভুটান আর মালদ্বীপের জন্য রওনা দিয়ে দিয়েছে।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বিদেশ মন্ত্রালয় জানিয়েছে যে, ভারত সহায়তা অনুদান অনুযায়ী ভুটান, মালদ্বীপ, বাংলাদেশ, নেপাল, মায়ানমার, সেশেলস, শ্রীলঙ্কাকে করোনা টিকা পাঠাবে। পুনের সিরাম ইনস্টিটিউট দ্বারা তৈরি স্বদেশী কোভিড টিকা কোভ্যাকসিনের ১ লক্ষ ৫০ হাজার ডোজ ভুটানকে আর ১ লক্ষ ডোজ মালদ্বীপকে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ভারত বিশ্বের অন্যতম বড় টিকা নির্মাতাদের মধ্যে পড়ে। আর ভারতের থেকে করোনার প্রতিষেধক কেনার জন্য অনেক দেশ লাইন লাগিয়েছে। কিন্তু ভারতের প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তান এই সুবিধা পাবে না। কারণ তাঁরা এখনো টিকা নিয়ে ভারতের সাথে কোনও যোগাযোগ করেনি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজের ট্যুইটে বলেছিলেন যে বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্যসেবা প্রয়োজন মেটাতে ভারত একজন ‘বিশ্বস্ত’ অংশীদার হয়ে গর্বিত বোধ করছে এবং বুধবার থেকে টিকা সরবরাহ শুরু হবে এবং আগামী দিনে আরও অনেক কিছু হবে।

 

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...