সব খবর সবার আগে।

লাভ জিহাদ নিয়ে কড়া যোগী সরকার! উত্তরপ্রদেশ বিধানসভায় হল অবৈধভাবে ধর্ম পরিবর্তন নিয়ে নিষিদ্ধ বিল পাশ

লাভ জিহাদের মতো ঘটনাকে নিয়ে কড়া মনোভাব নিয়েছে যোগীর উত্তর প্রদেশ। ‌ তা ঠিক পরেই রয়েছে মধ্যপ্রদেশ।

ষড়যন্ত্র করে হিন্দু মেয়েদের প্রেমের জালে ফাঁসানো এবং তৎপর ভুয়ো পরিচয়ে বিয়ে করা এবং তারপর ধর্ম পরিবর্তনে জোর দেওয়া এই ধরণের ঘটনা দেশে প্রায় আকছার ঘটছে।

সংখ্যালঘু তোষণ ও ভোট ব্যাঙ্কের চক্করে দেশের বেশিরভাগ রাজ্য‌ই এই ইস্যুতে নীরব। তবে ‘রামরাজ্যে’ অর্থাৎ যোগীর উত্তরপ্রদেশ এই ঘটনায় যথেষ্ট সরব। ক্ষমতায় আসার পর থেকেই উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকারকে লাভ জিহাদের মতো ঘটনায় কড়া মনোভাব দেখিয়েছে।

এবার এই স্পর্শকাতর ইস্যুতে কড়া পদক্ষেপ নিল উত্তর প্রদেশ। ২৪ শে ফেব্রুয়ারি অর্থাৎ বুধবার উত্তরপ্রদেশ বিধানসভায় অবৈধভাবে ধর্ম পরিবর্তন নিষিদ্ধ বিল পাশ করানো হয়। যোগী সরকার লাভ জিহাদ ও ধৰ্ম পরিবর্তনের ঘটনায় লাগাম লাগানোর জন্য একটা ড্রাফট তৈরি করেছিল। বিধান সভায় ধ্বনিমতে বিল পাশ হয়েছে যা রাজ্যপালের হস্তাক্ষরের পর আইনের রূপ নেবে।

কি বলা হয়েছে এই আইনে?

এই আইন অনুযায়ী, ষড়যন্ত্র করে ধর্ম পরিবর্তনকারীদের ১ বছর থেকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হবে। এছাড়াও অভিযুক্তকে নির্যাতিতার পরিবারকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে।

এই প্রসঙ্গে যোগী আদিত্যনাথ বলেন, এই আইন তাদের জন্য সতর্কতা জারি করবে যারা পরিচয় লুকিয়ে আমাদের বোনেদের সন্মান হরণ করার চেষ্টা করে। উনি আরো বলেন, আমরা যেটা বলেছিলাম সেটা করে দেখিয়েছি। সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের কনৌজ জেলা থেকে লাভ জিহাদের ঘটনা সামনে এসেছে।

প্রসঙ্গত, কনৌজ জেলার তৌফিক নামের এক মুসলিম যুবক নিজের আসল নাম লুকিয়ে এক হিন্দু যুবতীকে প্রেম জালে ফাঁসিয়েছিল। যুবককে হিন্দু সম্প্রদায়ের মনে করে যুবতী পরিবার‌ও ধুমধাম করে বিয়ে পর্যন্ত দিয়ে দেয়। বিয়ের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ার পর আসল রহস্য সামনে আসে। ঘটনা জানাজানি হতেই যুবতীর পরিবার যুবকের উপর মামলা দায়ের করে। আপাতত পুলিশ তৌফিককে গ্রেফতার করেছে।

You might also like
Comments
Loading...