প্রযুক্তি

২২ তারিখের মধ্যে কেন্দ্রের ৭০টি প্রশ্নের জবাব না দিলে Tiktok সহ ৫৯ টি অ্যাপের ওপর স্থায়ী নিষেধাজ্ঞা

সম্প্রতি ব্যবহারকারীদের তথ্য সুরক্ষিত রাখার তাগিদে চীনের ৫৯ টি অ্যাপকে ভারতের মাটিতে নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এবার ওই অ্যাপগুলিকে নোটিশ জারি করেছে কেন্দ্রীয় ইলেকট্রনিক অ্যান্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি মন্ত্রক। নোটিশে নিষিদ্ধ অ্যাপগুলির কাছে ৭০ টির মতো প্রশ্নের তালিকা পাঠানো হয়েছে। কর্তৃপক্ষ তরফে এই প্রশ্নগুলির উত্তর দেওয়ার জন্য অ্যাপগুলিকে তিন সপ্তাহ সময় দেওয়া হয়েছে। নির্দেশে মন্ত্রক জানিয়েছে, ২২ জুলাইয়ের মধ্যে প্রশ্নগুলি সম্পর্কে জবাব দিতে না পারলে অ্যাপগুলির ওপর জারি নিষেধাজ্ঞা স্থায়ী হয়ে হবে।

বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ওই প্রশ্নের উত্তরগুলো খতিয়ে দেখবে উচ্চপর্যায়ের প্যানেল। ওই প্যানেলে থাকবেন ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো, সাইবার সিকিউরিটি উইং, টেলিকমিউনিকেশন বিভাগ, ইন্টারন্যাল সিকিউরিটি ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের সদস্যরা।

এই প্রশ্নাবলীর তালিকায় রয়েছে Tiktok ও Helo-র মতো অ্যাপগুলি। যাদের সমস্যা বাড়াবে বলেই মনে করা হচ্ছে। এই অ্যাপগুলির ভারতে গ্রাহক সংখ্যা বেশ বেশি।

প্রসঙ্গত, সরকার টিকটক, ইউসি ব্রাউজারের মতো ৫৯ টি চীনা অ্যাপের বিরুদ্ধে ভারতের সার্বভৌমত্ব, সংহতি, প্রতিরক্ষা, দেশের নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা ভাঙার মতো অভিযোগের ভিত্তিতে নিষিদ্ধ করেছে। নিষিদ্ধ অ্যাপগুলির তালিকায় রয়েছে টিকটক, শেয়ারইট, ইউসি ব্রাউজার, বাইডু ম্যাপ, এমআই কমিউনিটি, ক্লাব ফ্যাক্টরি, ওইচ্যাট, ইউসি নিউজ, ওয়েইবো, জেন্ডার, মেইটু, ক্যামস্ক্যানার ও ক্লিন মাস্টার-চীনা মোবাইল।

যে ৫৯ অ্যাপ নিষিদ্ধ হয়েছে সেগুলির মধ্যে টিকটকের মালিকানা রয়েছে বাইটড্যান্সের। টিকটকের দাবি, তারা তথ্য সংক্রান্ত গোপনীয়তা ও সুরক্ষা বিধির সমস্ত প্রয়োজনীয়তা মেনে চলেছে এবং ভারতে তাদের কোনও গ্রাহকের তথ্যই তারা চীন সহ কোনও বিদেশী সরকারের হাতে তুলে দেয়নি।

সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপগুলির মধ্যে ভারতে টিকটকের ২০০ মিলিয়ন গ্রাহক রয়েছে। অ্যানালেটিকস ফার্ম সেনসর টাওয়ার ডেটার তথ্য অনুযায়ী, গত এপ্রিলে এই অ্যাপের ডাউনলোড দুই বিলিয়ন ছাপিয়ে গিয়েছিল। এর ৩০ শতাংশই ভারতে।

Related Articles

Back to top button