নিউজ

বিপদের মুখে ঘাসফুল শিবির, বিজেপিতে যোগ দিলেন এই তৃণমূল বিধায়ক

এ রাজ্যে তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পর এবার তৃণমূলের লক্ষ্য হল জাতীয় রাজনীতিতে জায়গা কায়েম করা। এই কারণে বাংলা ছাড়াও অন্যান্য রাজ্যেও সংগঠনের ভিত মজবুত করতে উঠেপড়ে লেগেছে ঘাসফুল শিবির। নানান নেতারা নানান রাজ্যে যাচ্ছে সংগঠন স্থাপনের জন্য।

তবে ত্রিপুরায় সংগঠন তৈরিতে ব্যর্থ হয়েছে তৃণমূল। সেখানে নির্বাচনে মুখ থুবড়ে পড়েছে ঘাসফুল শিবির। এবার ফের একবার বিপদের মুখে পড়ল তৃণমূল। ফের এক বিধায়ক তৃণমূল ছেড়ে যোগ দিলেন বিজেপিতে।

আগামী মাসেই বিধানসভা নির্বাচন রয়েছে উত্তরপ্রদেশ, মণিপুর, গোয়া, পঞ্জাব, ও উত্তরাখণ্ডে। এর আগেই ভাঙন ধরল তৃণমূলে। আগামী ২৭শে ফেব্রুয়ারি ও ৩রা মার্চ নির্বাচন রয়েছে মণিপুরে। ৬০ বিধানসভা আসনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে সে রাজ্যের নাগরিকরা। লোকসভা নির্বাচনের কথা মাথায় রেখেই নানান রাজ্যে মাটি শক্ত করতে উদ্যত তৃণমূল।

কিন্তু মণিপুরে বিধানসভা নির্বাচনের আগেই সেখানকার একমাত্র তৃণমূল বিধায়ক টংব্রাম রবীন্দ্র সিং তৃণমূল ছেড়ে যোগ দিলেন বিজেপিতে। তৃণমূলের টিকিটে আগে জিতলেও, দলের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ছিল না বললেই চলে। ২০১৮ সাল থেকে তাঁর ফেসবুক কভার ফটোতে জ্বলজ্বল করছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ছবি। তিনি অনেকদিন আগে থেকেই বিজেপি সরকারকে বাইরে থেকে সমর্থন করতেন বলে জানা গিয়েছে।

সদ্য তৃণমূলত্যাগী টংব্রাম রবীন্দ্র সিং জানান যে বিজেপি নেতৃত্বের প্রতি তাঁর পূর্ণ আস্থা রয়েছে এবং দলের কাজ করার জন্য তিনি মুখিয়ে রয়েছেন। বলে রাখি, ২০১৭ সালের নির্বাচনে কাকচিং বিধানসভা কেন্দ্র থেকে কংগ্রেসের টিকিটে জিতেছিলেন সুরচন্দ্রা। তবে হলফনামাতে নিজের সম্পতি সংক্রান্ত তথ্য ভুল দেওয়ার অভিযোগে মণিপুর আদালতের নির্দেশে তাঁর বিধায়ক পদ খারিজ হয়ে যায়।

উল্লেখ্য, এদিন পদ্ম শিবিরে যোগ দেন কংগ্রেস নেতা ইয়েংখোম সুরচন্দ্র সিংও। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রতিমা ভৌমিক এবং অসমের মন্ত্রী অশোক সিংহলের উপস্থিতিতে গেরুয়া পতাকা হাতে তুলে নেন তাঁরা। এদিন বিজেপির যোগদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মণিপুর বিজেপি সভাপতি অধিকারীমায়ুম শারদা দেবীও। টুইট করে এই যোগদানের কথা জানান বিজেপি সভাপতি।

Related Articles

Back to top button