রাজ্য

স্লগ ওভারে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপাচ্ছে বিজেপি, ভবানীপুরে প্রিয়াঙ্কার হয়ে প্রচারে নামছেন গেরুয়া শিবিরের ৮০ জন নেতা

গোটা রাজ্য বা বলা ভালো গোটা দেশের নজরে এখন ভবানীপুরের উপনির্বাচন। আর বেশিদিন নেই। আগামী ৩০শে সেপ্টেম্বর ভোট। নিজের গড়েই অগ্নিপরীক্ষা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। মুখ্যমন্ত্রীর গদিতে টিকে থাকতে গেলে ভবানীপুর থেকে জিততেই হবে মমতাকে। অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রীকে গদিচ্যুত করতে আদাজল খেয়ে ময়দানে নেমেছে গেরুয়া শিবির।

ভবানীপুরে জয় নিয়ে ভীষণই আত্মবিশ্বাসী মমতা। এই কেন্দ্রে জয়ী হয়ে ভারত জয়ের বার্তা দিতে চাইছেন তিনি। কারণ একুশের বিধানসভার পর তৃণমূলের এখন লক্ষ্য যে দিল্লির মসনদ, তা বেশ স্পষ্ট। ক্রমেই মোদী বিরোধী মুখ হয়ে উঠছেন মমতা। আর তাই তাঁকে ঠেকাতে বিজেপিও লড়তে প্রস্তুত সর্বশক্তি দিয়ে।

আজ, সোমবার বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ভবানীপুরে প্রচারের শেষ সময়। এর আগেই বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের হয়ে প্রচারে নামছেন গেরুয়া শিবিরের ৮০ জন নেতা। এই তালিকায় রয়েছেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী থেকে শুরু করে সাংসদ অর্জুন সিং, সকলেই। ভবানীপুরের ৮টি ওয়ার্ডে প্রতিটিতে ১০ জন করে বিজেপি থাকবেন প্রিয়াঙ্কার জন্য প্রচারে।

আরও পড়ুন- কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবীতে কৃষক সংগঠনের ডাকা ধর্মঘটে সামিল বামেরা, রাজ্যের নানান প্রান্তে প্রতিবাদ, যাদবপুরে রেল রোকো বিক্ষোভ

আজ সকাল ৮টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত প্রথম পর্যায়ের প্রচার সেরেছেন বিজেপি নেতারা। এরপর দ্বিতীয় পর্যায়ের প্রচার শুরু হবে দুপুর ২টো থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। ভবানীপুরের অলিগলিতে ঝড়ের বেগে ঘুরবেন বিজেপি নেতারা। এই প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সহ-সভাপতি প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ভোটারদের বোঝানো হবে যে পশ্চিমবঙ্গের সম্মান পুনরুদ্ধার করা তাদের দায়িত্ব”।

এদিকে তৃণমূল সুপ্রিমোর প্রচারেও ভবানীপুরে নামবেন তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্যরা। মমতাকে এক লক্ষ ভোটে জেতানোই তৃণমূলের লক্ষ্য। গতকালই তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এই লক্ষ্যমাত্রা স্থির করে দেন। এই লক্ষ্যে পৌঁছতে সমানে লড়ে যাচ্ছেন তৃণমূল নেতা-কর্মীরা।

Related Articles

Back to top button