রাজ্য

মুখ্যমন্ত্রীর প্রতি অনুরাগ! নিজের রক্ত দিয়ে মমতার ছবি আঁকলেন সুরজিৎ, ‘বিশেষ কিছু একটা করতে চেয়েছিলাম’, দাবী যুবকের

কোনও মানুষের প্রতি অগাধ শ্রদ্ধা ও অনুরাগ থেকে আমরা অনেকেই অনেক কিছু করে থাকি। যাদের আমরা নিজেদের আদর্শ বলে মানি, তাদের জন্য বিশেষ কিছু করতে যেন আমরা মুকিয়ে থাকি। অনেকেই সেসবকে পাগলামি বলে হয়ত উড়িয়েও দেন, কিন্তু যারা মন থেকে নিজের আদর্শ ব্যক্তির জন্য কিছু করেন, তা তাদের কাছে কতটা গুরুত্ব রাখে, তা হয়ত সেই মানুষটা ছাড়া কেউ জানবেন না।

এবার এমনই এক কাণ্ড ঘটালেন দুর্গাপুরের সুরজিৎ রায়। ছোটো থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি গভীর অনুরাগ তাঁর। এই কারণে এবার তাঁর ছবি ক্যানভাসে ফুটিয়ে তুলল সুরজিৎ। তবে কোনও রঙ দিয়ে নয়, নিজের রক্ত দিয়ে। হ্যাঁ, নিজের রক্ত দিয়েই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি আঁকল সুরজিৎ। সেই ছবি নিজের হাতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে তুলে দিতে চায় সুরজিৎ।

সুরজিৎ রায়ের বাড়ি দুর্গাপুর আমরাই গ্রামে। বয়স ২১ বছর। উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষায় পাশ করার পর থেকেই এলাকার ছাত্র-ছাত্রীদের ছবি আঁকা শেখায় সুরজিৎ। ছোটবেলা থেকেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুরাগী সে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নমূলক কাজ তাঁকে বরাবর আকৃষ্ট করে এসেছে। মুখ্যমন্ত্রী দুর্গাপুর সফরের কথা শুনেই সে তাঁকে একটি ছবি উপহার দেওয়ার কথা চিন্তা করে। আরে এরপরই নিজের রক্ত দিয়েই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি আঁকে সে।

আজ, বুধবার দুর্গাপুরে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশাসনিক বৈঠক রয়েছে। সেই বৈঠকেই এই ছবি মুখ্যমন্ত্রীর হাতে তুলে দিতে চায় সুরজিৎ। সে জানায়, “আমি বেশ কিছুদিন আগে হাসপাতালে ভর্তি ছিলাম। সেখানে আমার চিকিৎসার আগে রক্ত পরীক্ষা করা হয়েছিল। সেখানে চিকিৎসকদের অনুরোধ করে আমি আমার রক্তের কিছুটা অংশ নিজের কাছে রেখে দিই। সেটা দিয়েই আমি মুখ্যমন্ত্রীর ছবি এঁকেছি। ওটা আমি তাঁর হাতে তুলে দিতে চাই। আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাজের প্রতি ছোটবেলা থেকেই খুব অনুরাগী”।

কিন্তু হঠাৎ রক্ত দিয়ে ছবি আঁকা কেন? উত্তরে সুরজিৎ বলে, “সবাই তো পেন্সিল, পেন, রং, তুলি দিয়ে ছবি আঁকে। আমি বিশেষ কিছু একটা করতে চেয়েছিলাম। তাই রক্ত দিয়ে এটা এঁকেছি।আমি সংবাদ মাধ্যমে জানতে পারি উনি দুর্গাপুরে আসছেন প্রশাসনিক বৈঠক করার জন্য। এরপর কাল থেকেই আমি এই ছবিটা তৈরি করা শুরু করেছি”।

বলে রাখি, আজ, বুধবার দুর্গাপুরের সৃজনী প্রেক্ষাগৃহে বর্ধমান জেলা নিয়ে সরকারি আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সাধারণ জনগণের সেখানে উপস্থিত থাকার কথা নয়। তাই সুরজিৎ কীভাবে তাঁর আঁকা ছবি তাঁর আদর্শের হাতে তুলে দেবে, সে সম্পর্কে অবশ্য সেভাবে কিছু জানা যায়নি। তবে সে সংবাদমাধ্যমের কাছে আবেদন জানায় যাতে সে এই ছবিটি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে তুলে দিতে পারে।

Related Articles

Back to top button