সব খবর সবার আগে।

কয়লা বিতর্কের মাঝেই অভিষেক পত্নী রুজিরা’র নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুললেন অর্জুন সিং

বাংলায় আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপির শাসক দলকে আক্রমণের প্রধান অস্ত্র হয়ে দাঁড়িয়েছে ভাইপো অভিষেক ও তাঁর তোলাবাজি।

ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশ হতে যখন আর মাত্র কয়েক ঘন্টা বাকি তার আগেই কয়লা কাণ্ডে সিবিআই-এর চিঠি পেয়েছেন তৃণমূলের উত্তরাধিকারী অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় স্ত্রীর রুজিরা নারুলা ও তার বোন মেনকা গম্ভীর।

আর এইসবের মাঝেই এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় এক পুরনো  ভিডিও পোস্ট করেছেন বিজেপি নেতা অর্জুন সিংহ। যে ভিডিওতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলতে শোনা যাচ্ছে, ‘গত ৩৪ বছর ধরে ওঁর তাইল্যান্ডের পাসপোর্ট রয়েছে।’

আর‌ও পড়ুন-এখনও অনেক তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে তল্লাশি অভিযান চালানো বাকী রয়েছে, কয়লা পাচার কাণ্ড প্রসঙ্গে অনুপম

উনি তাইল্যান্ডের নাগরিক, সেই পরিচয় লুকোচ্ছেন! এই ভাষাতেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা-র বিরুদ্ধে অভিযোগ শানালেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহ।

গতকাল থেকেই বন্দ্যোপাধ্যায় পরিবারে সিবিআই-এর চিঠি পৌঁছনোর পর থেকেই বঙ্গ রাজনীতি তোলপাড়। গোটা বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। এদিন মেনকা গম্ভীরকে ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। আগামীকাল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থাকে তাঁর বাড়িতে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য সম্মতি দিয়েছেন রুজিরা। কাল তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের পর খতিয়ে দেখা হবে কোথায় কটি অ্যাকাউন্ট রয়েছে।

এর মাঝেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এক পুরনো  ভিডিও পোস্ট করেছেন অর্জুন সিংহ। যে ভিডিওতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলতে শোনা যাচ্ছে, ‘গত ৩৪ বছর ধরে ওঁর তাইল্যান্ডের পাসপোর্ট রয়েছে।’ বিজেপি-র সাংসদ একটি নথিও শেয়ার করেছেন, যেখানে রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভারতীয় নাগরিকত্বের উল্লেখ রয়েছে।

এই বিষয়ে সিবিআই সূত্রের দাবি, কয়লাকাণ্ডের তদন্তে একাধিক ব্যবসায়ীর নাম উঠে আসে। কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদও করা হয়। সেই সূত্রেই অভিষেকের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে আর্থিক লেনদেনের তথ্য হাতে এসেছে বলে সিবিআই সূত্রের দাবি। 

একই সঙ্গে সিবিআই সূত্রে আরও দাবি করা হয়, কয়লা পাচারের টাকা থেকে বিভিন্ন হাত ঘুরে কলকাতা হয়ে জমা পড়ে তাইল্যান্ডের একটি ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্টে। সিবিআই সূত্রে দাবি, ওই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে প্রচুর পরিমাণ টাকা কলকাতা থেকে ট্রান্সফার করা হয়েছিল। কোন অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা ট্রান্সফার করা হয়েছিল, তাও খতিয়ে দেখা হয়।

গোয়েন্দাদের সন্দেহ, যে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের কথা বলা হচ্ছে, সেটি অভিষেক প্রতিনিধি। সেই আর্থিক লেনদেনের অভিযোগের প্রেক্ষিতেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী-কে প্রশ্ন করতে চান গোয়েন্দারা।

সিবিআই সূত্রের দাবি, রুজিরাকে নোটিস দেওয়া হয়েছে সিআরপিসির ১৬০ ধারায়। তাতে জানানো হয়েছে, রুজিরা কয়লাকাণ্ডে সাক্ষী হিসেবে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চান গোয়েন্দা। তবে তাঁকে সিবিআই দফতরে তলব করা হচ্ছে না। বাড়িতেই মহিলা সিবিআই অফিসারদের উপস্থিতিতে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চান গোয়েন্দারা। রেকর্ড করতে চান তাঁর বয়ান।

সিবিআই সূত্রের খবর, এদিন গোয়েন্দারা যখন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে যান, তখন তাঁদের জানানো হয়, বাড়িতে কেউ নেই। তাই নোটিসের সঙ্গে সঙ্গে ফোন নম্বর দিয়ে আসেন সিবিআই অফিসারেরা।

অভিষেক পত্নী বাড়ি ফিরলেই তাঁকে ফোন করতে বলা হয়েছে। জানানো হয়েছে, অবিলম্বে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চান গোয়েন্দারা। গতকাল বিকেল ৫টার সময় হাইল্যান্ড পার্ক এলাকায় অভিষেকের স্ত্রীর বোনের বাড়িতে গিয়ে নোটিস দেয় সিবিআই।

এর পাশাপাশি, সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে, কয়লাকাণ্ডের তদন্তে লন্ডনের একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের হদিশ পাওয়া গিয়েছে। ওই অ্যাকাউন্টে পাঠানো হয়েছে প্রচুর টাকা, খবর সিবিআই সূত্রে। এই সূত্রেই অভিষেকের শ্যালিকাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে চায় সিবিআই, খবর তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে।

_taboola.push({mode:'thumbnails-a', container:'taboola-below-article', placement:'below-article', target_type: 'mix'}); window._taboola = window._taboola || []; _taboola.push({mode:'thumbnails-rr', container:'taboola-below-article-second', placement:'below-article-2nd', target_type: 'mix'});
You might also like
Comments
Loading...