রাজ্য

বাংলার মীরজাফর-গদ্দার-বেইমানদের কোন ঠাঁই নেই! মুকুলহীন পদ্মে রাজীবের বিরুদ্ধে পড়ল পোস্টার

মুকুলের তৃণমূলে আগমনের ঠিক দু’দিন আগেই বিজেপির বিরুদ্ধে ছোট্ট করে মুখ খুলে ফেলে ছিলেন বিধানসভা নির্বাচনের আগে দল বদলে বিজেপিতে যাওয়া রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। তার জন্য সৌমিত্র খাঁ’র কাছে ভালো রকম কটাক্ষ হজম করেন তিনি। এর মধ্যেই গতকাল বিজেপির ভাবনা-চিন্তার ঊর্ধ্বে গিয়ে সপুত্র তৃণমূলে প্রত্যাবর্তন করেন মুকুল রায় ।

আর তারপর থেকেই ফের নিশানায় রাজীব। তিনিও দল বদলাতে পারেন এমনই আশঙ্কা করছে বঙ্গ বিজেপি শিবির।এরই মাঝে এবার তৃণমূলের তরফ থেকে পোস্টার পরল।

আজ অর্থাৎ শনিবার সকালে ডোমজুড়ের বাঁকড়া এলাকায় রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বিরুদ্ধে পোস্টার এবং ফ্লেক্স পড়ে।

আরও পড়ুন- ‘মস্তক মুণ্ডন করে পাপ খণ্ডাব’, মুকুল বিদায়ে প্রথম প্রতিক্রিয়া সৌমিত্র খাঁর

কিন্তু সেখানে প্রত্যক্ষভাবে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম না থাকলেও পরোক্ষভাবে এই পোস্টার যে তাঁর বিরুদ্ধেই পড়েছে বুঝতে বাকি নেই রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব থেকে সাধারণ মানুষের।‌

কী লেখা আছে ওই পোস্টারে?‌

রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্রে পড়া ওই বির্তকিত পোস্টারে লেখা আছে, বাংলার মীরজাফর–গদ্দার–বেইমানদের কোন‌ও ঠাঁই নেই। তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে আবেদন করা হয়েছে সেচ দফতরে তদন্ত কমিটি বসিয়ে গদ্দারদের অবিলম্বে গ্রেফতার করতে হবে। পোস্টার বা ফ্লেক্সের নীচে লেখা আছে ডোমজুড় কেন্দ্র তৃণমূল কংগ্রেস। অর্থাৎ বিজেপি কর্মী সমর্থক রা নয় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী–সমর্থকরাই আর চাইছেন না রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় আবার দলে ফিরুক। রাজ্য নেতৃত্বকে বার্তা দিতেই এই পোস্টার বলে মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন- তৃণমূলের রাজ্যসভার সংসদ পদে বসতে চলেছেন মুকুল রায়

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, শুভেন্দু অধিকারী’র দল পরিবর্তনের পর‌ই তৃণমূল ছাড়েন রাজীব।  তিনি সেচমন্ত্রী, বনমন্ত্রী পদে থাকাকালীন বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে। সদ্যসমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনে ডোমজুড় বিধানসভা কেন্দ্র থেকে হেরেও যান তিনি। আর তারপরই ফের তৃণমূলে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। সম্প্রতি তিনি একটি টুইটে লেখেন, ‘‌কথায় কথায় দিল্লি বা ৩৫৬ ধারার জুজু দেখালে তা বাংলার মানুষ ভাল চোখে নেবে না।’‌ আর কাল মুকুল রায়ের তৃণমূলে আগমনের পর সেই গুঞ্জন আর‌ও জোরদার হয়েছে। এবার দেখার রাজীব ফিরতে চাইলে তাঁকে দলে নেয় কিনা তৃণমূল!

Related Articles

Back to top button