সব খবর সবার আগে।

এখনও অনেক তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে তল্লাশি অভিযান চালানো বাকী রয়েছে, কয়লা পাচার কাণ্ড প্রসঙ্গে অনুপম

বিধানসভা নির্বাচন আসন্ন। এর আগেই কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা পশ্চিমবঙ্গে কয়লা ও গরু পাচার কাণ্ডের তদন্তে নেমেছে। কয়লা পাচার কাণ্ডে তৃণমূলের বেশ কিছু বড় বড় মাথা ও তাদের পরিবারের নাম জড়িয়ে পড়েছে। সিবিআই-এর এই তদন্তকে পূর্ণ সমর্থন করে বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা বলেন যে আগামী দিনে হয়ত আরও অনেক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে তল্লাশি অভিযান চালানো হবে।

আরও পড়ুন- মেট্রো ডেয়ারির টাকায় কারচুপি, ফিরহাদ হাকিমের বড় মেয়েকে নোটিস ইডি-র!!!

এই প্রসঙ্গে অনুপম হাজরা বলেন, “বিজেপি দেশের স্বার্থে কাজ করতে চায়। কিন্তু গত ১০ বছরে তৃণমূল প্রচুর দুর্নীতি করেছে। এইসব দুর্নীতির তদন্ত করা আমাদের দায়িত্ব। এটা তো সবে শুরু, এখনও অনেক তৃণমূল নেতাদের বাড়ি তল্লাশি চালানো হবে, কারণ জনগণ জবাব চায়”।

তিনি আরও বলেন যে মানুষকে ভয় দেখিয়ে ভোট আদায় করা ও সরকারের টাকা আত্মসাৎ করাই তৃণমূলের সংস্কৃতি। কিন্তু বিজেপি প্রতিহিংসার রাজনীতিতে বিশ্বাস করে না বলে দাবী অনুপমের। তাঁর মতে, বিজেপি বাংলায় শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে চায় যাতে ভোট দিতে যাওয়ার সময় মানুষ কোনওরকম আতঙ্কে না ভোগেন যে তারা আদৌ বাড়ি ফিরতে পারবেন তো? “আমরা এই সংস্কৃতির নিষ্কৃতি চাই। ভারত স্বতন্ত্র রাষ্ট্র। তাই আমরা চাই যাতে জনগণ কোনওরকম ভয়, আতঙ্ক ছাড়াই নিজেদের ভোট দিতে পারেন”।

আরও পড়ুন- বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে একই মঞ্চে তৃণমূলের এক সাংসদ, ফের দলবদলের ইঙ্গিত, বাড়ছে জল্পনা

বলে রাখি, গতকাল, রবিবার সিবিআই তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায় নাড়ুলাকে কয়লা পাচার কাণ্ডে যুক্ত থাকার জন্য নোটিশ পাঠায়। তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠানো হলে তিনি হাজিরা দেননি। এরপর আজ রুজিরা বোন মনিকা গম্ভীরকেও এই একই ঘটনায় যুক্ত থাকার জন্য সমন পাঠায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

You might also like
Comments
Loading...