রাজ্য

‘হেরেছি ঠিকই, দায়িত্ববোধ কমেনি’, ভবানীপুরে হেরে গিয়েও মানুষের পাশে থেকে সাহায্যের বার্তা দিলেন প্রিয়াঙ্কা

ভবানীপুরের উপনির্বাচনের ফলও হবে নন্দীগ্রামের মতোই। এই আশা নিয়ে ফের ভোটের ময়দানে নেমেছিলেন বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। কিন্তু ভোটশেষে দেখা গেল তিনি ও তাঁর দল গো-হারান হেরেছে। কিন্তু হেরে গিয়েও থেমে থাকতে রাজি নন প্রিয়াঙ্কা। সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে প্রিয়াঙ্কা জানান যে এই নির্বাচনের পর যদি কেউ কোনও সমস্যায় পড়েন, তাহলে তিনি বা তারা যেন তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তিনি যথাসাধ্য সাহায্য করবেন।

ঠিক কী পোস্ট করেছেন তিনি?‌ প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল লিখেছেন, “আমি ভোটে হেরে গিয়েছি ঠিকই। তবে আমার মানুষের প্রতি দায়িত্ববোধ তাতে বিন্দুমাত্র কমেনি। আমি মানুষের জন্য কাজ করে যাব”।

এখান থেকেই প্রশ্ন উঠেছে যে ভবানীপুরে তিনি কী কাজ করবেন? এই বিষয়ে প্রিয়াঙ্কা জানান, যদি কোনও বিজেপি নেতা–কর্মী হিংসার শিকার হন, তাহলে তিনি আইন মেনে তাদের সাহায্য করবেন।

বলে রাখি, ভোট পরবর্তী হিংসার মামলায় আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল বিজেপির হয়ে সওয়াল করেছিলেন। শুধু তাই-ই নয়, গত ৩রা অক্টোবর ভবানীপুরে ভোটের ফলাফল প্রকাশের দিন তিনি আগে থেকেই কলকাতা হাইকোর্টের ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল ও রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে চিঠি দিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন যে ভোট পরবর্তী হিংসা ফের হতে পারে ভবানীপুরে। তবে তৃণমূল সুপ্রিমোকে তাঁর জয়ের জন্য অভিনন্দন জানাতেও ভোলেন নি প্রিয়াঙ্কা।

উপনির্বাচনে তাঁর হারের পর প্রিয়াঙ্কা সরকারের সর্বস্তরে চিঠি লিখে উল্লেখ করেছিলেন যে কোথাও কোনও হিংসা যাতে না ঘটে, সেদিকে যেন লক্ষ্য রাখে সরকার। এর পাশাপাশি তিনি বাংলার মানুষকে এও মনে করিয়ে দেন যে তিনি নির্বাচনে পরাজিত হয়েছেন ঠিকই, কিন্তু তিনি রাজনীতির ময়দান ছাড়েন নি। মানুষের পাশে তিনি সর্বক্ষণ রয়েছে, এমন বার্তাও দেন প্রিয়াঙ্কা।

Related Articles

Back to top button