সব খবর সবার আগে।

দিলীপ-কৈলাশের নেতৃত্ব নিয়ে প্রশ্ন, প্রার্থীদের নগরের নটী আখ্যা, তথাগতকে দিল্লি তলব কেন্দ্রের

বরাবরই বিতর্কিত মন্তব্য করে খবরের শিরোনাম দখল করেন বিজেপির বর্ষীয়ান নেতা তথাগত রায়। সায়নী ঘোষ হোক বা শ্রাবন্তী, তনুশ্রী, পায়েল তথাগত’র কটুক্তি থেকে রেহাই নেই কারোর l

বঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের সামনে কার্যত আত্মসমর্পণ করার পর বিজেপির এই ভরাডুবি বিদায় রাজ্য নেতৃত্ব তৃণমূলের এই সমস্ত মহিলা তারকা প্রার্থীদের ঘাড়ে চাপিয়েছেন ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়।

আরও পড়ুন- হতাশাগ্রস্ত! ভোটে হারার পরই স্পষ্ট বিজেপির অভ্যন্তরীণ সংঘাত, একে অপরকে কড়াভাবে দোষারোপ বিজেপি নেতাদের 

তৃণমূল নেতা মদন মিত্র’র সঙ্গে এই বছর দোল খেলতে দেখা যায় টলিউডের তিন তারকা তথা বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী, তনুশ্রী, পায়েলকে। বেশ নিন্দাও হয়েছিল এই ঘটনার। ভোটে এই তিন জনেরই ভরাডুবি হয়।

আর তারপরেই রেগে অগ্নি শর্মা তথাগত টুইট করেন এই নগরের নটীদের কে প্রার্থী করেছিল? যা বাকচান কৈলাশ বিজয়বর্গীয় ও দিলীপ ঘোষের কাছে।

টুইটে তিনি লেখেন, ‘পায়েল–শ্রাবন্তী–পার্নো ইত্যাদি ‘নগরীর নটীরা’ নির্বাচনের টাকা নিয়ে কেলি করে বেড়িয়েছেন। মদন মিত্রের সঙ্গে নৌকাবিলাসে গিয়ে সেলফি তুলেছেন। তাঁদেরকে টিকিট দিয়েছিল কে? কেন দেওয়া হয়েছিল? দিলীপ–কৈলাস–শিবপ্রকাশ–অরবিন্দ প্রভুরা একটু আলোকপাত করবেন কি’?‌ পরে অবশ্য অন্য জায়গায় পার্নোর জায়গায় তনুশ্রীর নাম উল্লেখ করেন।

আরও পড়ুন- শীতলকুচি ঘটনার ফল! ফের ক্ষমতায় এসেই কোচবিহারের পুলিশ সুপারকে অপসারিত করলেন মমতা

আর এবার তার জেরে তথাগত রায়কে দিল্লিতে তলব করেছে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। বৃহস্পতিবার নিজেই টুইট করে তথাগত লিখেছেন, ‘আমাকে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের পক্ষ থেকে দ্রুত দিল্লি আসতে বলা হয়েছে। এটা সাধারণ তথ্য হিসেবে জানানো হল।’

তথাগত’র এই আক্রমনাত্মক টুইটের পর থেকেই ক্রুদ্ধ রাজ্য নেতৃত্ব। আর তাই কেন্দ্রের তাঁকে ডেকে পাঠানো যথেষ্ট প্রাসঙ্গিক বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল।

তথাগত’র এই  ধরনের টুইটে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বিজেপির ইমেজ। এই কারণেই হয়তো রাজ্য নেতৃত্ব নালিশ ঠুকেছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের কাছে বলে সূত্রের খবর। আর তাই রাজধানী থেকে ডাক পড়েছে তথাগত’র।
You might also like
Comments
Loading...