রাজ্য

শিবলিঙ্গ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য, হিন্দু ধর্মের অবমাননা, ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করলেন বিজেপি নেতা

বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মা মহানবী হজরত মহম্মদ সম্পর্কে যে মন্তব্য করেছেন, তা নিয়ে রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ দেখা দিয়েছে। হাওড়া, মুর্শিদাবাদ, নদিয়ার পর আজ, সোমবার উত্তর ২৪ পরগণার বারাসাতেও এই বিক্ষোভের আঁচ ছড়ায়। এরই মধ্যে ঘটল আরও এক ঘটনা।

গত শনিবার ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকি মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে আবেদন জানান যাতে তারা কোনও ধরণের প্ররোচনায় কান না দেন। এই ঘটনায় জন্য তিনি দোষারোপ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ্‌’কে। নূপুর শর্মাকে এখনও গ্রেফতার না করা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি। আর এরই ত্বহা সিদ্দিকির বিরুদ্ধে তালতলা থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন বিজেপি নেতা দেবদত্ত মাজি।

কিন্তু কেন এই অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি?

গত শনিবার বিজন চক্রবর্তী নামের এক ব্যক্তি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করেন। সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে যে ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা ত্বহা সিদ্দিকি জামা মসজিদে শিবলিঙ্গ পাওয়া নিয়ে কিছু মন্তব্য করছেন। আর তাঁর সেই মন্তব্য বেশ অপমানজনক।

ভিডিওতে তাঁকে বলতে শোনা যায়, “জামা মসজিদে নাকি লিঙ্গ পাওয়া গেছে। এটা তো সমাজের একটা হাসির খোরাক বলে মনে হচ্ছে। শিবের কত বড় লিঙ্গ! সারা ভারতে ঘুরেঘুরে বেড়াচ্ছে। শিবের লিঙ্গের এত পছন্দ যে মুসলমানদের মসজিদগুলিতে গিয়ে বসে পড়ছে। কোনদিন শুনবেন ফুরফুরা শরিফেও শিবের লিঙ্গ চলে এসেছে। এসব পাগলদের কথা”।

এই ভিডিও শেয়ার করে বিজনবাবু লেখেন, “এটা নিয়ে কী কিছু হবে? এফআইআর করার মতো কেউ আছে”।

তিনি আরও লেখেন, “দয়া করে রাজনীতি টানবে না, আরাধ্য দেবতা শিব কে কটুক্তি করেছে, আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন করছি। ট্যাগ লিস্টে যারা আছে সকলেই আইন সম্পর্কে অবগত আছো”।

এই ভিডিও-র প্রেক্ষিতেই তালতলা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন দেবদত্ত মাজি। তালতলা থানার ভারপ্রাপ্ত আধিকারিককে চিঠি লেখেন তিনি। সেই চিঠিতে তিনি লিখেছেন, “সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে একটি ভিডিও। ত্বহা সিদ্দিকী খুব অপমানজনক ভাষায় হিন্দুদের দেবতার উপহাস করছেন। তিনি ইচ্ছাকৃত ভাবেই হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত করেছেন। তাঁর কোনও অধিকার নেই কারুর অনুভূতি নিয়ে এভাবে কথা বলার। ত্বহা সিদ্দিকীর বক্তব্য আমার ধর্মীয় অনুভূতিকে আঘাত করেছে। বাংলার বর্তমান উত্তপ্ত পরিস্থিতিকে আরও জটিল করে তুলতে পারে এই ভিডিও। আমি প্রশাসন এর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করুক”।

Related Articles

Back to top button